জন্মদিনে ভাই-বোনের ভালোবাসায় সিক্ত হৃদয় খান

বিনোদন প্রতিবেদক : বাংলাদেশের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী হৃদয় খান। যার নাম শুনলেই এ প্রজন্মের তরুণ-তরুণীদের মনে সুরের ঢেউ খেলে যায়। অল্প সময়ের মধ্যে গান গেয়ে লাখো মানুষের হৃদয়ে নিজের স্থান করে নিয়েছেন এই শিল্পী। ৩ জানুয়ারি হৃদয় খানের শুভ জন্মদিন।

হৃদয় খান ১৯৯১ সালের ৩ জানুয়ারি ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। পরিবারে দুই ভাই ও এক বোনের মাঝে হৃদয় বড়। ছোট ভাই প্রত্যয় খান একজন গায়ক, সুরকার ও সংগীত পরিচালক। ছোট বোন রাইজা ষষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ছে। মা শেফালী খান ও তার বাবা রিপন খান, যিনি বাংলাদেশের ‘জিঙ্গেল কিং’ নামে পরিচিত। তার দাদা মইনুল ইসলাম খান একজন সঙ্গীতশিল্পী ও সঙ্গীত প্রশিক্ষক ছিলেন।

আজ হৃদয় খান তার জন্মদিনে সিক্ত হলেন ভাই-বোনের ভালোবাসায়। প্রত্যয় খান ভাইয়ের জন্মদিনে উইস করে ফেসবুকে একটি ছবি পোস্ট করে জন্মদিনের শুভেচ্ছ জানান। এই ছবিতে দেখা যাচ্ছে, হৃদয় খান, প্রত্যয় খান ও রাইসা খানকে। এ ছাড়া সারা দিনই ভক্তদের ভালোবাসায় সিক্ত হচ্ছেন এই শিল্পী।

২০০৮ সালে ‘হৃদয় মিক্সড’ বাজারে এলে ‘চাইনা মেয়ে’ গানটি দিয়ে ব্যাপক আলোচনায় আসেন হৃদয় খান। বর্তমান প্রজন্মের এ শিল্পী এরপর একে একে বাজারে আনেন ‘বল না’ (২০০৯), ‘হৃদয় মিক্স ২’ (২০১০), ‘ছোঁয়া’ (২০১১), ‘হৃদয় মিক্স ৩’ (২০১৩), ‘ভালো লাগে না’ (২০১৪)। এরপর নিয়মিত প্রকাশ করে আসছেন সিঙ্গেল গানের ভিডিও।

বেশ কিছু চলচ্চিত্রের গান গেয়েও দর্শক শ্রোতার মন জয় করেছেন হৃদয় খান। চলচ্চিত্রের গানের এ্যালবামগুলোর মধ্যে আছে ‘আমার প্রাণের প্রিয়া’, ‘ছোঁয়া’ ও ‘ভাঙা তরী’ ‘ আরও ভালোবাসবো তোমায়’ উল্লেখযোগ্য।

বাবা রিপন খানই হৃদয় খানের অনুপ্রেরণা। সঙ্গীতের হাতেখড়িটাও এসেছে তার কাছ থেকে। সঙ্গীতকে ভালবেসে সঙ্গীত নিয়ে পড়াশোনাও শুরু করলেন হৃদয় খান। এখন হৃদয় খান একজন শিল্পীই নন, একই সঙ্গে তিনি একজন গীতিকার, সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালকও। কাজের পাশাপাশি চলচ্চিত্রেও সঙ্গীত পরিচালনা করছেন।বাবার পথ ধরে বিজ্ঞাপনের জিঙ্গেলও পরিচালনা করেছেন হৃদয় খান।