জনবিচ্ছিন্ন নেতাকে ভাড়া করা বিএনপির জন্য দুর্ভাগ্যজনক: নাসিম

ঢাকা, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ : আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র এবং স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্টে শামিল হয়ে বিএনপি নিজেরাই এখন তাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মাইনাস করার জন্য মাঠে নেমেছে। জনবিচ্ছিন্ন নেতাকে ভাড়া করা বিএনপির জন্য দুর্ভাগ্য জনক।

আজ সোমবার ধানমন্ডিস্থ প্রিয়াংকা কমিউনিটি সেন্টারে কেন্দ্রীয় ১৪ দলের বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্টে শামিল হয়ে বিএনপি নিজেরাই এখন তাদের নেত্রীকে মাইনাস করার জন্য মাঠে নেমেছে। বিএনপিকে এখন অন্য নেতৃত্ব ভাড়া করতে হচ্ছে। অন্য এক নেতাকে এনে তারাই তাদের দুই নেতাকে মাইনাস করার জন্য নিজেরাই মাঠে নেমেছে। জনবিচ্ছিন্ন নেতাকে ভাড়া করা বিএনপির জন্য দুর্ভাগ্য।’

কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সমাবেশের সমালোচনা করে তিনি বলেন, গত ২২ সেপ্টেম্বর মহানগর নাট্যমঞ্চে একটি নাটক অনুষ্ঠিত হয়েছে। যারা স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিকে লালন করেছে, লালন করে যাচ্ছে এবং যারা বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনীদের সহায়তাকারী সমর্থনকারী; সেই বর্ণচোরা ওয়ান ইলেভেনের কুশীলবরা সবাই একই মঞ্চে বসে নাটক করলেন।

মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ওয়ান ইলেভেনের সেই কুশীলব ওই মঞ্চে উপস্থিত ছিল। এই সমস্ত লোককে মানুষে চেনে। মানুষ জানে। যারা ওয়ান ইলেভেন সৃষ্টি করে মূলত শেখ হাসিনাকে মাইনাস করার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু বাংলাদেশের জনগণের ঐক্যবদ্ধ সংগ্রাম এবং শেখ হাসিনার সাহসের কারণে সেদিন তারা পরাস্ত হয়েছিল।

ষড়যন্ত্রকারিদের সকল চক্রান্ত প্রতিহত করা হবে জানিয়ে তিনি বলেন, কোন ছাড় দেওয়া হবে না। ২০১৪ সালের নির্বাচনে যেমন আমরা চক্রান্ত প্রতিহত করেছি এবারও ১৪ দল মাঠে ময়দানে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করে লড়াই করে আমরা তাদের চক্রান্ত প্রতিহত করবো।

সকল চক্রান্তের বিরুদ্ধে প্রতিটি বিভাগে অক্টোবরের মধ্যে সমাবেশ করা হবে জানিয়ে ১৪ দলের মুখপাত্র বলেন, এই কর্মসূচির অংশ হিসাবে আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর ঢাকার মহানগর নাট্যমঞ্চে ১৪ দলের একটি সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। ওখান থেকে আমরা পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করবো।

এর আগে মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে বৈঠকে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন ও খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আকতার, ওয়ার্কার্স পাটির পলিট ব্যুরো সদস্য আনিসুর রহমান মল্লিক, তরিকত ফেডারেশনের নজিবুর বশর মাইজভান্ডারী, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দিলীপ কুমার রায় প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।