জগন্নাথের ‘এ’ ইউনিটে পাসের হার ২৪.২৮

নিজস্ব প্রতিনিধি : জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ‘এ’ ইউনিটের (বিজ্ঞান অনুষদ ও লাইফ অ্যান্ড আর্থ সায়েন্স অনুষদ অন্তর্ভুক্ত) স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের প্রথম সেমিস্টারের ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। পাসের হার ২৪.২৮।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ, তথ্য ও প্রকাশনা দপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. সাইফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘এ’ ইউনিটে ৭৯৭টি আসনের বিপরীতে ৫৯ হাজার ৪৩৩ ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী আবেদন করেছিলেন। অর্থাৎ প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৫ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেন। প্রাথমিকভাবে পাস করেছেন ১৪ হাজার ৪৩৫ জন শিক্ষার্থী। তিন ৯৮৫ জন শিক্ষার্থীর ফলাফলের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে (www.jnu.ac.bd)-এ পাওয়া যাবে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) ক্যাম্পাসসহ মোট ২৭টি পরীক্ষা কেন্দ্রে গত শুক্রবার বিকাল তিনটা থেকে চারটা পর্যন্ত একযোগে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। ‘এ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র জালিয়াতির অভিযোগে পাঁচজনকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এদিকে গতকাল রবিবার দুপুরে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে ‘এ’ ইউনিটর প্রথম বর্ষ প্রথম সেমিস্টার স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি ও প্রশ্নপত্র ফাঁসের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তির দাবি, এ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা বাতিল এবং পুনরায় এ ইউনিটের পরীক্ষা নেয়ার দাবিতে মানববন্ধন করেছে শাখা ছাত্র ইউনিয়ন। মানববন্ধনে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ‘এ’ইউনিটের পরীক্ষা বাতিল ও নতুন করে ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি ঘোষণা না করলে কঠোর আন্দোলনের ডাক দেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দেয় সংগঠনটি।

এরই পরিপেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় ডিজিটাল জালিয়াতির মাধ্যমে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয় বলে বিষয়টি খতিয়ে দেখে একটি প্রতিবেদন দিতে আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. সরকার আলী আক্কাসকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তদন্ত কমিটির অপর দুই সদস্য হলেন ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. মনিরুজ্জামান এবং ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আতিয়ার রহমান। কমিটিকে রিপোর্ট জমা দিতে সাত কার্যদিবস সময় দেয়া হয়েছে।

Inline
Inline