ছেলেদের ব্ল্যাকহেডস হলে করণীয়

লাইফস্টাইল ডেস্ক : ব্ল্যাকহেডস নিয়ে শুধু যে মেয়েরাই সমস্যায় ভোগেন, এমন নয়। ত্বকের এই সমস্যায় ভুগে থাকেন ছেলেরাও। অনেকক্ষেত্রে মেয়েদের থেকেও ছেলেদের ত্বকে বেশি দেখা যায় এই সমস্যা। কারণ তারা মেয়েদের তুলনায় বেশি সময় ধুলোবালির সংস্পর্শে থাকে এবং ত্বকের প্রতি কম যত্নশীল হয়।

আমাদের নাকের দুপাশে, কপালে, গালে, চিবুকে, থুতনির উপর, ঠোঁটের আশেপাশে যে ছোট ছোট বাদামি অথবা কালো এবং ত্বকের থেকে অল্প উঁচু অংশ থাকে তাকেই ব্ল্যাকহেডস বলে। অনেক সময় এই সমস্যা শরীরের বিভিন্ন অংশে ছড়িয়ে যায়।

যেকোনো বয়সে ধুলাবালির আক্রমণে ব্ল্যাকহেডস হতে পারে। মূলত মুখ ভালোভাবে পরিষ্কার না করলে ব্ল্যাকহেডস হয়। অতিরিক্ত প্রসাধনী ব্যবহারের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হিসেবেও ব্ল্যাকহেডস হতে পারে। তেল-ময়লা জমে বন্ধ হয়ে যাওয়া ত্বকের ছিদ্র এবং মৃত কোষের সমষ্টি, বাতাসের অক্সিজেনের সংস্পর্শে এসে কালো হয়ে ব্ল্যাকহেডসে রূপ নেয়। প্রাথমিক অবস্থায় ব্ল্যাকহেডসের ছিদ্র কম থাকে, পরবর্তীতে তা সারামুখে ছড়িয়ে পড়ে।

টমেটো
টমেটোর খোসা ছাড়িয়ে হামানদিস্তায় থেঁতো করে নিন। সঙ্গে হালকা পরিমাণ পানি ও চিনি মেশান। ব্ল্যাকহেডস আছে এমন জায়গায় সারারাত লাগিয়ে রাখুন। ঘুম থেকে জেগে ঠান্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

অ্যালোভেরা
ঘৃতকুমারীর পাতা মাঝখান থেকে কেটে নরম শ্বাস বের করে নিন। পেস্ট তৈরি করুন এবং আলতো করে মুখে প্রলেপ দিন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। নিয়মিত ব্যবহারে ব্ল্যাকহেডস দূর হয়ে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়বে।

স্ট্রবেরি
একটি স্ট্রবেরি, আধা চা চামচ মধু আর আধা চা চামচ লেবুর রস একসঙ্গে মিশান। তারপর সেটা ব্ল্যাকহেডসের উপর প্রলেপ দিন। ১৫-২০ মিনিট পর ঠান্ডা পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

ডিমের ফেসপ্যাক
একটি ডিমের সাদা অংশ ও এক চা চামচ মধু ভালোভাবে ফেটিয়ে নিন। ত্বকে লাগিয়ে শুকনো হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। কুসুম গরম পানিতে ধুয়ে মুখ ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে দুবার মুখে লাগান। ডিমের সাদা অংশে যে অ্যালবুমিন থাকে, তা ত্বকের ছিদ্রগুলিকে টাইট রাখে, ফলে ব্ল্যাকহেডস হয় না। বিশেষ করে তৈলাক্ত ত্বকের ক্ষেত্রে এটি খুব উপযোগী।

স্টিম
লোমকূপ উন্মুক্ত করার জন্য স্টিম মেশিন বা গরম পানির ভাপ দিতে হবে। এক্ষেত্রে স্টিম মেশিন না থাকলে কাঁচের বোতলে অথবা মগে ভরে গামছা বা তোয়ালের উপর দিয়ে ব্ল্যাকহেডসে তাপ দিতে হবে। তবে খুব বেশি তাপ দিলে ত্বকের ক্ষতি হবে।

দারুচিনির
এক চিমটি দারুচিনির গুড়া ও ময়দার সঙ্গে সমপরিমাণ লেবুর রস দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। ব্ল্যাকহেডসের উপর সারারাত লাগিয়ে রাখুন। সকালে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

টক দই
টক দই, ধনেপাতা ও হলুদের মিশ্রিত পেস্ট দিয়েও ব্লাকহেডস দূর করা সম্ভব। এক্ষেত্রে মুখ ভালোভাবে ধুয়ে ব্যবহার করতে হবে। প্রতিদিন ১-২ ঘণ্টা ব্যবহারে ব্লাকহেডস থেকে মুক্তি মিলতে পারে।

অর্গানিক নারিকেল তেল
শুষ্ক ত্বকের জন্য অর্গানিক নারিকেল তেল দিয়ে দুই-এক মিনিট ব্ল্যাকহেডসের উপর ম্যাসেজ করুন। মৃত কোষ ঝরে ব্ল্যাকহেডস থেকে মুক্তি মিলবে।