ছুঁই ছুঁই করছে পদ্মার পানি

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে পদ্মা নদীর পানি বিপৎসীমা ছুঁই ছুঁই করছে। বর্তমানে বিপৎসীমার ১ এক দশমিক ৮ মিটার নিচ দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। সোমবার দুপুর ১২টায় নগরীর বড়কুঠি পয়েন্টে পানি প্রবাহ রেকর্ড করা হয়েছে ১৬ দশমিক ৭০ মিটার। এর আগে রোববার দুপুরে ১২টায় পদ্মায় প্রবাহ ছিল ১৬ দশমিক ৬১ মিটার।

রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ডর বড়কুঠি গেজ পাঠক এনামুল হক এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সোমবার দুপুর ১২টায় নগরীর বড়কুঠি পয়েন্টে পানি প্রবাহ রেকর্ড করা হয়েছে ১৬ দশমিক ৭০ মিটার। এর আগে সকাল ৬টায় প্রবাহ ছিল ১৬ দশমিক ৬৯ মিটার। গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মায় প্রবাহ বেড়েছে ৯ সেন্টিমিটার। উজান থেকে নেমে আসা ঢলে পদ্মায় প্রবাহ বাড়ছে বলে জানিয়েছেন এনামুল হক।

তিনি আরও জানান, গত ১৭ বছরে রাজশাহীতে পদ্মায় পানি প্রবাহ বিপৎসীমা অতিক্রম করেছে মাত্র দুইবার। এর মধ্যে ২০০৪ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত টানা ৮ বছর রাজশাহীতে পদ্মার পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করেনি। ২০০৩ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মার সর্বোচ্চ উচ্চতা ছিল ১৮ দশমিক ৮৫ মিটার। এরপর ২০১৩ সালের ৭ সেপ্টেম্বর রাজশাহীতে পদ্মা বিপৎসীমা অতিক্রম করেছিল। ওই বছর পদ্মার উচ্চতা দাঁড়িয়েছিল ১৮ দশমিক ৭০ মিটার। এরপর পানি বাড়লেও আর ওই রেকর্ড ভাঙেনি।

এদিকে পদ্মায় পানি বাড়ায় শঙ্কা বাড়ছে শহর রক্ষা বাঁধের পুরনো অংশ নিয়ে। রক্ষণাবেক্ষণে অবহেলা ও দখলে নাজুক অবস্থা এই অংশের। পানির চাপ বাড়লে যেকোনো সময় ঘটতে পাতে দুর্ঘটনা।

পানি উন্নয়ন বোর্ড জানাচ্ছে, নদীর তলদেশ ভরাট হয়ে যাওয়ায় বিপৎসীমা এখন আর সেইভাবে প্রভাব ফেলছে না।
তবে পদ্মায় প্রবাহ বাড়লে চাপ বাড়বে শহররক্ষা বাঁধের পুরনো অংশে। নগরীর বুলনপুর থেকে নবগঙ্গা পর্যন্ত প্রায় পাঁচ কিলোমিটার নতুন বাঁধ নিয়ে তেমন শঙ্কা নেই।

অন্যদিকে পদ্মায় প্রবাহ বাড়ায় বানের পানি ঢুকতে শুরু করেছে পদ্মার চরাঞ্চল ও তীরবর্তী নিচু এলাকায়। এতে দুর্ভোগ বাড়ছে মানুষের।