চুয়াডাঙ্গায় পৃথক ঘটনায় ২টি লাশ উদ্ধার

হাবিবুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গায় পৃথক ঘটনায় ২টি অপমৃতের লাশ উদ্ধার হয়েছে। এর মধ্যে জেলার জীবননগর-দত্তনগর সড়কের আলিয়া মাদরাসা সংলগ্ন মাছ বাজারের সামনে সড়ক দূর্ঘটনায় অজ্ঞাত এক পাগল যুবকের মৃত্যু হয়। নিহত পাগল যুবকের ডান পায়ে, হাতে, কোমরের নিচে ও কপালে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়।

জানা যায়, মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে এলাকার মুসল্লিরা নামাজ পড়ে দত্তনগর সড়কে হাটতে যাওয়ার সময় জীবননগর পৌর মাছ বাজারের সামনে জীবননগর-দত্তনগর সড়কের উপর অজ্ঞাত এক পাগল যুবকের (৩০) মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখে।

স্থানীয়দের ধারণা সোমবার দিবাগত রাতে যেকোনো সময় পাগল যুবকটিকে সড়কে চলাচলকারী কোনো যানবাহন ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায় এবং রাতেই কোনো একসময় চিকিৎসার অভাবে যুবকটি মারা যায়।

এলাকাবাসীরা আরো জানান, গত বেশ কয়েক দিন যাবৎ আলিয়া মাদরাসা সংলগ্ন মাছ বাজারের সামনে অজ্ঞাত এক পাগল যুবককে দেখা যেত। রাতে রাস্তার পাশে এক টিনের ছাপড়ার নিচে রাত্রি যাপন করতো বলে জানা যায়।

পরে জীবননগর থানার পুলিশ লাশ উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে। নিহত পাগল ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া যায়নি।

অপর ঘটনায় জেলার দর্শনা পৌরসভার হঠাৎপাড়া রেলওয়ে জংশনের পাশের মাঠ থেকে গোলাম রহমান(৮০) নামের এক বৃদ্ধ কৃষকের লাশ উদ্ধার করে দামুড়হুদা মডেল থানার পুলিশ। গোলাম রহমানের বাড়ী দামুড়হুদা উপজেলার মদনা মাঝেরপাড়া বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা জানান, গতকাল বেলা ১২টার দিকে বৃদ্ধের লাশ পড়ে থাকতে দেখে দামুড়হুদা মডেল থানার পুলিশকে খবর দেয়া হয়। পরে খবর পেয়ে স্বজনেরা এসে লাশ সনাক্ত করলে পুলিশের কাছে কোন অভিযোগ না থাকায় তাদের কাছে লাশ হস্তান্তর করে।

জানা গেছে, বৃদ্ধ গোলাম রহমান মাঠে মাঠে খড় সংগ্রহ করে বাড়ুন তৈরী করে বিক্রি করতো। গতকাল ও খড় কাটার উদ্দেশ্যে সকালে বাড়ী থেকে বের হয়। ধারনা করা হচ্ছে দীর্ঘ পথ এসে খড় কাটার কোন এক সময় গরমে ষ্ট্রোক করে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।