চার গ্র্যাজুয়েটের আখের রস

ডেস্ক রিপোর্ট : প্রচন্ড গরমে অনেকে আখের রসটাকেই তৃষ্ণা মেটানোর জন্য পান করে থাকেন। আখের রস শুধুই তৃষ্ণা মেটায় না, এটি শরীরের জন্যও বেশ উপকারী পানীয়। তবে আজকের গল্পে ‘আখের রস’ কোনো পানীয় দ্রব্য নয়, চারজন গ্র্যাজুয়েটের স্বপ্ন!


গ্র্যাজুয়েশন শেষে সবাই যখন ফাইল হাতে ছুটোছুটি করে চাকরির খোঁজে, ঠিক সেই সময়টাতে ঢাকার আখের আরতগুলোতে খোঁজ নিতে ব্যস্ত রাশেদ মোজাম্মেল। জীবনগল্পের শুরু থেকেই তার ইচ্ছে ছিল নিজ সম্বলে কিছু একটা করবেন। তাই পড়াশোনার ফাঁকে ফাঁকে পার্টটাইম কাজ করে অল্প কিছু পুঁজি করেছিলেন, দেশের অন্যতম পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে গ্র্যাজুয়েট হওয়া এই তরুণ।
শুরুতে নিজের জমানো অল্প পুঁজিতে ব্যবসা শুরু করলেও আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে তারই তিন সহপাঠী মবিন, কাউসার ও রাজিবকে ব্যবসায় অংশীদার করেন। বর্তমানে ‘আখের রস এন্ড জুসবার’ নিয়ে চারজনে একসঙ্গে কাজ করছেন।
আখের রস এন্ড জুসবার-এর প্রতিষ্ঠাতা রাশেদ বলেন, ‘ইচ্ছে ছিল এমন কিছু করার যেটা অন্যদের চাইতে একটু ভিন্ন হবে। আমি মনে করি, আমাদের এই ধারণাটা অন্যদের চাইতে ব্যতিক্রম এবং আমাদের দেশে একেবারেই নতুন।’ ঢাকার বিভিন্ন আরত থেকে আখ সংগ্রহ করে সেগুলো নিজেদের বারে নিয়ে আসেন এবং নিজস্ব মেশিনে বিশুদ্ধ আখের রস তৈরি করে পরিবেশন করেন। অন্যান্য জুসবারে সবধরনের জুস পাওয়া গেলেও এখানে তারা শুধুমাত্র আখের রস বিক্রি করেন। প্রতিনিয়ত তাদের ক্রেতার সংখ্যা যেমন বাড়ছে, তেমনি বাড়ছে তাদের প্রতিদিনের রোজগার।
রাশেদ এর মতোই যদি তরুণরা নিজ উদ্যোগে স্বাবলম্বী হতে পারে তাহলে বেকারত্ব ঘুচবে অচিরেই।