চাঁদপুর-৩ আসনে আ.লীগের একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী, বিএনপি নিরব

এম এম কামাল, চাঁদপুর থেকে : ভোটের হাওয়া চারদিকে। শুরু হয়েছে জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে আলোচনা। রাজনৈতিক নেতাদের মুখে এখন নির্বাচন নিয়ে কথা। তুলে ধরছেন নিজেদের সফলতা। নির্বাচিত হলে আবারও উন্নয়ন করবেন এমন আশ্বাস তাদের। দেশের সর্বোচ্চ পর্যায়ের নির্বাচন এটি। দেশের মানুষের ভবিষ্যৎ, পরিকল্পনা ও উন্নয়ন, আইন প্রণয়ন এবং সাধারণ মানুষের কথা মহান জাতীয় সংসদে তুলে ধরেন সংসদ সদস্যরা। তাই এ নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

চাঁদপুর-৩ (চাঁদপুর সদর-হাইমচর) এ আসনে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি দুইবার এমপি পদে নির্বাচিত হয়েছেন। বর্তমানে দ্বিতীয় মেয়াদে রয়েছেন। তিনি আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এ দুই উপজেলায় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের নিয়ে নৌকা মার্কার পক্ষে কাজ করছেন। দলীয় ও সরকারি কর্মসূচীতে অংশ গ্রহন, মহিলা সমাবেশ, গরীব ও অসহায়দের খোঁজ খবর নিতে দেখা গেছে তাকে। জাতীয় নির্বাচনে তাকে আবারও মনোনয়ন দেয়া হবে এমন আলোচনা নেতা-কর্মীদের মুখে মুখে। তবে দলীয় প্রধান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই দিবেন চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত।

অপরদিকে ক্ষমতাসীন দলের অপর নেতা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রান ও সমাজকল্যান বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি সুজিত রায় নন্দীও নৌকার পক্ষে নিয়মিত গণসংযোগ ও উঠান বৈঠক করছেন। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে অর্থ এবং অন্যান্য সহযোগিতা করছেন। বিভিন্ন উৎসব উপলক্ষে ব্যানার ও ফেস্টুন দিয়ে নৌকার পক্ষে প্রচারনা চালাচ্ছেন। সম্প্রতি সময়ে তিনি চাঁদপুর সদর ও হাইমচর উপজেলায় সাধারণ মানুষের কাছে গিয়ে নৌকা মার্কার পক্ষে ভোট চেয়েছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের উন্নয়মূলক কর্মকান্ড তুলে ধরছেন এই নেতা। তিনি ও তার সমর্থক নেতা-কর্মীরাও আশাবাদী তিনি এ আসন থেকে মনোনয়ন পাবেন।

এছাড়াও ব্যানার ও ফেস্টুন দিয়ে নৌকার পক্ষে প্রচারনা করতে দেখা গেছে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র নাছির উদ্দিন আহমেদকে। কিন্তু তিনি প্রকাশ্যে কোথাও প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেননি। নৌকার পক্ষে এই আসনে আরো কাজ করছেন এফবিসিসিআই এর সদস্য বাংলাদেশ আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ রেদোয়ান খান বোরহান। তিনি দুই উপজেলার মাঠে-ময়দানে নৌকার পক্ষে জনসংযোগসহ দেশ-বিদেশে আওয়ামী লীগের নেতাদের সাথে আগামী নির্বাচনে চাঁদপুরের উন্নয়নে করনীয় নিয়ে বিভিন্ন সভা সমাবেশ করে যাচ্ছেন।

এদিকে বিএনপির সাবেক ৩ বারের এমপি জিএম ফজলুল হক বর্তমানে অসুস্থ্য, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক শেখ ফরিদ আহমেদ মানিক ও ছাত্রদল কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি ও জেলা বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তফা খান সফরী এই আসনে নেতাকর্মীদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগসহ সামাজিক বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন অব্যাহত রেখেছেন। এই আসনে জাপা’র প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন খান ও উপজেলা জাপা’র সাধারণ সম্পাদক এড. মহসিন খান, গনফোরামের একমাত্র প্রার্থী চাঁদপুর জেলা আইনজীবি সমিতির সাবেক সভাপতি এড. সেলিম আকবর গনসংযোগ অব্যাহত রেখেছেন।

এ আসনের দুটি উপজেলা রয়েছে। এর মধ্যে চাঁদপুর সদর উপজেলার আয়তন ৩০৮.৭৮বর্গ কিলোমিটার। জনসংখ্যা ৩৬৭০২৫ জন। ইউনিয়ন ১৪টি ও পৌরসভা ১টি। এতে ভোটার সংখ্যা ৩০৫১৪৭জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১৬০৫২৫ এবং মহিলা ভোটার ১৬৯৯৪২জন। হাইমচর উপজেলার আয়তন ১৩৪.১৬বর্গ কিলোমিটার। জনসংখ্যা ১০৯৫৭৫ জন। ইউনিয়ন ৬টি। এতে ভোটার সংখ্যা ৮২১১০ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৪২৭৭০ এবং মহিলা ভোটার ৩৯৩৩০জন।