চাঁদপুরে রমরমিয়ে চলছে ‘আমি নেতা হবো’

চাঁদপুর প্রতিনিধি : গত শুক্রবার সারা দেশের ১৬৫টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে সুপারস্টার শাকিব খান ও বিদ্যা সিনহা মীম অভিনীত বহুল আলোচিত ছবি ‘আমি নেতা হবো’। প্রিয় তারকার এই ছবি দেখতে চাঁদপুরের পুরানবাজার কোহিনুর হলে শত শত সিনেপ্রেমিক দর্শকের উপছে পড়া ভীড় লক্ষ্য করা গেছে।

দীর্ঘ এক যুগ বন্ধ ছিল পুরানবাজারের এই সিনেমা হলটি। নতুন করে খোলার পরেই দর্শকদের এমন ভীড় ও সিনেমার প্রতি তাদের আগ্রহে আবার যেন প্রাণ ফিরে পেল সিনেমা হলটি।

কোহিনুর হল কর্তৃপক্ষ জানায়, ‘প্রায় এক যুগ পর পুরানবাজার কোহিনুর সিনেমা হল জমে উঠেছে। ‘আমি নেতা হবো’ মুক্তির পর ছবিটি দেখতে দর্শকরা ব্যাকুল হয়ে পড়েছেন। ছবিটি দেখতে প্রতি শো-তেই প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণিতে শত শত দর্শক ছিল। চারটি শো-তে হাজার হাজার দর্শক উপভোগ করেছেন ছবিটি।’
‘আমি নেতা হবো’ পরিচালনা করেছেন উত্তম আঁকাশ। প্রযোজনা করেছে শাপলা মিডিয়া। দেশের নামকরা এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার মোঃ সেলিম খান চাঁদপুরের কৃতী সন্তান। চাঁদপুরের চারটি সিনেমা হলে তিনি মুক্তি দিয়েছেন ‘আমি নেতা হবো’।

ছবিটি দেখার জন্য চাঁদপুর শহর ছাড়াও গ্রাম-গঞ্জের হাজার হাজার কৃষক, শ্রমিক ও দিনমজুরকে পরিবারসহ ছুটে আসতে দেখা যাচেছ সিনেমা হলে। অন্য হলগুলোর চেয়ে পুরানবাজার কোহিনুর সিনেমা হলেই তারা ভীড় জমাচ্ছে বেশি।

প্রযোজক সেলিম খান জানান, ‘সারা দেশের ১৬৫টি সিনেমা হলে শুক্রবার মুক্তি পেয়েছে ‘আমি নেতা হবো’। এর আগে চাঁদপুরের কোনো হলে এত আলোচিত কোনো ছবি মুক্তি পায়নি। বাংলা ছবির প্রতি দর্শকদের আস্থা উঠে যাওয়ায় হল মালিকদের অনেক লোকসান গুণতে হয়েছে। বন্ধ হয়ে গেছে দেশের অনেক হল। ইতিমধ্যেই দর্শকদের সেই আস্থা ফিরিয়ে এনেছে ‘আমি নেতা হবো’। হলগুলো ফিরে পেয়েছে তাদের পুরনো ঐতিহ্য।’
‘আমি নেতা হবো’ ছবিতে শাকিব-মীম ছাড়াও অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় তারকা দম্পতি ওমর সানী ও মৌসুমী। আরও আছেন কাজী হায়াৎ, ডিজে সোহেল ও সাদেক বাচ্চু প্রমুখ। এই ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে দীর্ঘ ৯ বছর পর আবারও পর্দায় একসঙ্গে হাজির হলেন শাকিব খান ও বিদ্যা সিনহা মিম। ২০০৯ সালে ‘আমার প্রাণের প্রিয়া’ ছবিতে প্রথম অভিনয় করেছিলেন তারা।