চলে গেলেন না ফেরার দেশে অভিনেত্রী তাজিন

নিজস্ব সংবাদদাতা : চলে গেলেন  না ফেরার দেশে ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী তাজিন আহমেদ। মঙ্গলবার বিকাল চারটা ৪০ মিনিটে উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালে তার মৃত্যু হয় (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)।

মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে তাজিন তার উত্তরার বাসাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হন। এরপর দ্রুত তাকে উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে ডা. নূর হোসেনের অধীনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় না ফেরার দেশে পাড়ি জমান তাজিন।

জানা গেছে, যখন তাজিনের হার্ট অ্যাটাক হয় তখন বাসায় পরিবারের কেউ ছিলেন না। কেবলমাত্র একজন মেকাপ আর্টিস্ট ছিলেন। তিনি তাজিনের সঙ্গেই থাকতেন। তিনিই তাজিনকে উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তাকে আইসিউতে ভর্তি করা হয়। রিজেন্ট হাসপাতালের তথ্য বিভাগের কর্মকর্তা আরিফ আহম্মেদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তাজিন আহমেদের জন্ম ১৯৭৫ সালের ৩০ জুলাই। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর করেন। বিটিভির সোনালি দিনগুলোতে তাজিন আহমেদের উত্থান। জাহিদ হাসান, আজিজুল হাকিম, আজাদ আবুল কালাম, তৌকীর আহমেদ, টনি ডায়েসদের সঙ্গে জুটি বেঁধে নিয়মিতই তিনি হাজির হতেন টিভি দর্শকদের সামনে।

দিলারা ডলি রচিত ও শেখ নিয়ামত আলী পরিচালিত ‘শেষ দেখা শেষ নয়’ নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তাজিন আহমেদের অভিনয়যাত্রা শুরু হয়েছিল। নাটকটি ১৯৯৬ সালে বিটিভিতে প্রচার হয়েছিল। অভিনয়ের পাশাপাশি মডেলিংয়েও সুনাম কুড়িয়েছেন তিনি।

এছাড়াও ভোরের কাগজ, প্রথম আলোসহ বিভিন্ন পত্রিকায় সাংবাদিকতা করেছেন। আনন্দ ভুবন ম্যাগাজিনের কলামিস্টও ছিলেন তিনি। পরে মার্কেন্টাইল ব্যাংকে পাবলিক রিলেশন অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তাজিন আহমেদের লেখার হাতও ছিলো অসাধারণ। রেডিও এবং টেলিভিশনে উপস্থাপনাও করেছেন।

গত বছর ববি হাজ্জাজের নতুন রাজনৈতিক সংগঠন ‘বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনে’ (এনডিএম) যোগ দিয়েছিলেন তাজিন আহমেদ। পেয়েছিলেন দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির বিভাগীয় সম্পাদক (সাংস্কৃতিক) পদ।

Inline
Inline