গ্রামে যাবে শহরের আধুনিক সুযোগ-সুবিধা

নিজস্ব প্রতিবেদক : শহরে যেসব আধুনিক সুযোগ-সুবিধা রয়েছে সেগুলো গ্রামে পৌঁছে দেয়ার জন্য কর্মপরিকল্পনা নেয়া আছে। এগুলো আরও ত্বরান্বিত করা হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এমন মন্তব্য করেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাওয়া নতুন এ মন্ত্রী। এর আগে সকাল পৌনে ১০টায় ধানমন্ডির বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মন্ত্রিসভার নতুন মন্ত্রীদের সঙ্গে তিনিও শ্রদ্ধা জানান। বেলা ১১টায় স্বাধীনতা সংগ্রামের শহীদদের প্রতিও শ্রদ্ধা নিবেদন করেন নতুন সরকারের দায়িত্ব পাওয়া মন্ত্রীরা। পরে তিনি সচিবালয়ে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

তাজুল ইসলাম বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মন্ত্রিপরিষদের একজন সদস্য। প্রধানমন্ত্রী একটি লক্ষ্য নির্ধারণ করেছেন, সেটি হচ্ছে আমরা উন্নত বাংলাদেশ গড়ে তুলব। সে লক্ষ্যে কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন করা আছে। ওই পরিকল্পনাগুলো ত্বরান্বিত করার জন্য এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আমরা বাংলাদেশের মানুষের স্বপ্ন পূরণ করব।

তিনি বলেন, গ্রামের মানুষকে অবহেলিত রেখে উন্নত বাংলাদেশ গড়া যাবে না। তাই প্রধানমন্ত্রী গ্রামকে গুরুত্ব দিয়েছেন। শহরে যেসব আধুনিক সুযোগ-সুবিধা রয়েছে সেগুলো গ্রামে পৌঁছে দেয়ার জন্য কর্মপরিকল্পনা নেয়া আছে। এগুলো আরও ত্বরান্বিত করা হবে।

বর্ষার সময় রাজধানীতে জলাবদ্ধতার বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এসব ক্ষেত্রে যেসব পদক্ষেপ নেয়া যায় সেসব পদক্ষেপ নেয়া হবে।

‘আগামী পাঁচ বছর আরও অনেক চমক থাকবে’ উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ‘নতুন সরকারের মূল দায়িত্ব হবে নিরপেক্ষভাবে সবকিছু পরিচালনা করা।’