গোবিন্দগঞ্জে লিমন হত্যাকান্ডের রহস্য উন্মোচিত

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল, গাইবান্ধা সংবাদদাতা : গাইবান্ধা জেলার পুলিশ সুপার প্রকৌশলী আবদুল মান্নান মিয়ার নির্দেশনায় সি-সার্কেলের তত্বাবধানে, গোবিন্দগঞ্জের শীতলগ্রামে অত্যন্ত গরীব ও মেধাবী শিশু লিমন(১০) এর নৃশংস হত্যাকান্ডের রহস্য উন্মোচিত হয়েছে।

আসামীদের জবানবন্দি সূত্রে জানা যায়, লিমনের বড় বোনের প্রেমিক হারুন প্রায়ই উত্যক্ত করত যা লিমন তার বাবা মাকে নিয়মিত জানাতো। প্রেমিক হারুনুর রশিদের পরিকল্পনায় তারই বন্ধু তৌফিক প্রধান, সাজু, নুর আলম ও পাপুল প্রধান একত্রিত হয়ে ছোট শিশু লিমনের হত্যাকান্ডে মেতে উঠে এমনকি, লিমনের অন্ডকোষ দুটিও কেটে ফেলে যা নাকাই ইউনিয়নের শীতল গ্রামবাসীকে শোকে হিমশীতল করে। তাছাড়া লিমনের পরিবারের সাথে দীর্ঘদিনের দ্বন্দ্বও শিশু লিমন হত্যাকান্ডের পেছনে রসদ যুগিয়েছে। ক্লুলেস মামলাটি তদন্তে সি-সার্কেলের নেতৃত্বে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ নিরলস পরিশ্রম করে দ্রুততম সময়ে মামলাটির রহস্য উন্মোচন করতে সক্ষম হয়।

মামলা তদন্তে পুলিশ সুপার মহোদয়ের বিচক্ষণতা ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটন সহজ হয়েছে বলে জানায় পুলিশ। লিমন হত্যাকান্ডের রহস্য উন্মোচন হওয়ায় পুলিশ সুপার, সি-সার্কেল, গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

চাঞ্চল্যকর লিমন হত্যায় জড়িতদের সুষ্ঠ বিচারের মাধ্যমে ফাঁসির দাবী করেছে লিমনের পরিবার ও এলাকাবাসী।