গুলিতে দুই ‘মাদক কারবারি’ নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের দুই জেলায় গুলিতে দুইজন নিহত হয়েছেন, যারা মাদক কারবারি বলে দাবি করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এর মধ্যে ময়মনসিংহের ভালুকায় গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে একজন এবং যশোরের চৌগাছায় দুই দল মাদক বিক্রেতার মধ্যে গোলাগুলিতে একজন নিহত হয়েছেন।

ময়মনসিংহের ভালুকায় গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে জামাল নামে এক মাদক কারবারি নিহত হয়েছেন। বুধবার গভীর রাতে উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের খন্দকারপাড়া এলাকায় এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

ডিবি পুলিশের দাবি, নিহত ব্যক্তি চিহ্নিত মাদক কারবারি। তার বিরুদ্ধে হত্যা ও মাদকসহ ছয়টিরও বেশি মামলা আছে। বন্দুকযুদ্ধের সময় ডিবি পুলিশের এএসআই জুয়েল, কনস্টেবল ফজলুল হকসহ দুই পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আশিকুর রহমান জানান, রাত সোয়া দুইটার দিকে ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ি ইউনিয়নের খন্দকারপাড়া গ্রামস্থ আ. রউফ মিয়ার বাড়ির পশ্চিমে পাকা রাস্তার পূর্বে মাদক হাতবদলের খবর পেয়ে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ও ভালুকা মডেল থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালাতে যায়। এ সময় মাদক কারবারিরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপসহ গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে।

উভয়পক্ষের মধ্যে গোলাগুলির এক পর্যায়ে মাদক কারবারিরা পালিয়ে যায়। পরে ওই এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে জালালকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। দ্রুত উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জালালকে মৃত ঘোষণা করেন।

বন্দুকযুদ্ধের পর ঘটনাস্থল থেকে ২০০ পিস ইয়াবা, চারটি গুলির খোসা, একটি বড় রামদা ও একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে ভালুকা মডেল থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে পুলিশ জানায়।

অন্যদিকে যশোরের চৌগাছায় দুই দল মাদক বিক্রেতার মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে একজন নিহত হয়েছেন। আনুমানিক ৩০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির নামপরিচয় জানা যায়নি। মঙ্গলবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে যশোর-চৌগাছা সড়কের চান্দাআফরা এলাকায় এই গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।

চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার শামীম উদ্দিন বলেন, রাত আড়াইটার দিকে চাঁন্দাআফরা এলাকায় দুইদল মাদক বিক্রেতাদের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধের খবর পেয়ে সেখানে যায় পুলিশ। পরে সেখানে গিয়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক যুবককে পড়ে থাকতে দেখা যায়। তাকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নেয়া হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এছাড়া গুলিবিদ্ধ ওই যুবকের পাশ থেকে একটি পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি এবং প্রায় তিন কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়েছে বলে ওসি জানান।

Inline
Inline