গাজীপুরে হাসান, খুলনায় মঞ্জু পেলেন ধানের শীষ

নিজস্ব সংবাদদাতা : আসন্ন দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রার্থী ঘোষণা করেছে বিএনপি। দুই সিটিতেই নতুন মুখ দিয়েছে দলটি। বর্তমানে দুই সিটিতেই দল সমর্থিত মেয়র থাকলেও তাদেরকে মনোনয়ন দেয়া হয়নি।

গাজীপুরে ধানের শীষ পেয়েছেন দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য হাসান উদ্দিন সরকার। আর খুলনায় পেয়েছেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সাংসদ নজরুল ইসলাম মঞ্জু। তিনি খুলনা মহানগর বিএনপিরও সভাপতি।

সোমবার রাতে গুলশান অফিসে সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

গত ৩১ মার্চ গাজীপুর ও খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। আগামী ১৫ মে দুই সিটিতে ভোট অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

২০১৩ সালের ৬ জুলাই গাজীপুর সিটি করপোরেশনে প্রথমবারের মতো ভোট হয়। সেই নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী আবদুল মান্নান তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের আজমত উল্লাহ খানকে প্রায় দেড় লাখ ভোটে পরাজিত করেন।

এর মাসখানেক আগে অনুষ্ঠিত হয় খুলনা সিটি নির্বাচন। সেই নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মনিরুজ্জামান মনি তার প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালুকদার আবদুল খালেককে ৬০ হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেন।

দুই মহানগরের ভোটকে সামনে রেখে ৫ এপ্রিল মনোনয়ন ফরম বিক্রি করে বিএনপি। রবিবার আগ্রহী প্রার্থীদের সাক্ষাৎকার নিলেও সিদ্ধান্ত জানায়নি দলটি।

এদিকে বেগম খালেদা জিয়া বিএনপির চেয়ারপারসন নির্বাচিত হওয়ার পর এই প্রথম দলের এতবড় একটি সিদ্ধান্ত তাকে ছাড়া নিতে হলো। কারণ, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হওয়ার পর তিনি কারাগারে আছেন।

বিএনপির একদিন আগেই প্রার্থী ঘোষণা করেছে সরকারি দল আওয়ামী লীগ। দলটি গাজীপুরে প্রার্থী পরিবর্তন করলেও খুলনায় আগের প্রার্থীকেই পুনরায় মনোনয়ন দিয়েছে। গাজীপুরে নৌকা পেয়েছেন জাহাঙ্গীর আলম এবং খুলনায় পেয়েছেন তালুকদার আবদুল খালেক।

আগামী ১৫ মে’র ভোটে গাজীপুরে জাহাঙ্গীর আলম ও হাসান সরকার এবং খুলনায় তালুকদার আবদুল খালেক ও নজরুল ইসলাম মঞ্জুর মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Inline
Inline