গরম খুন্তির ছ্যাকা দিয়ে ৫ বছরের শিশুর মুখমন্ডল, হাত ও পিঠ পুড়িয়ে দিলো আপন মা

পিরোজপুর সংবাদদাতা : পিরোজপুরের ইন্দুরকানিতে গরম খুন্তির ছ্যাকা দিয়ে ৫ বছরের শিশুর মুখমন্ডল, হাত ও পিঠ পুড়িয়ে দিলো আপন মা। শিশুটিকে পিরোজপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালে দেখতে আসা শিশুটির বাড়ির পাশের এক ব্যক্তি জানান মঙ্গলবার বিকেলে শিশুটি খেলা করছিল এসময় রান্না ঘরে রান্না করছিলো শিশু লিপির মা নাজমা বেগম। এসময় নাজমা বেগম মেয়ে লিপিকে ডাকাডাকি করেন কিন্তুু খেলাধুলায় মগ্ন থাকা শিশু লিপি তা শুনতে পায়নি। এতে মা প্রচন্ড রেগে যায় এবং হাতের কাছে থাকা গরম খুন্তি দিয়ে মেয়েকে মারতে গেলে তাতে শিশু লিপির হাত, মুখ ও পিঠ ঝলসে যায়। নাজমা বেগম পিরোজপুর ইন্দুরকানি উপজেলার বালিপাড়া ইউনিয়নের বাসিন্দা। নাজমা বেগমের স্বামী ইসমাইল চৌকিদার ফেনী জেলায় কাজ করেন বলে জানা গেছে। শিশুটির মায়ের সাথে কথা বলে জানা যায়, তার শ্বশুর শ্বাশুড়ি তাদের দাম্পত্য জীবন মেনে নিতে না পারায় তার পুত্রবধু নাজমা বেগমের উপর প্রায়ই অত্যাচার করেন। তাই মা নাজমা বেগম সেই রাগ সামলাতে না পেরে মেয়েকে মারধর করে।