খুশিকে নিয়ে কানাডায় চঞ্চল চৌধুরী

বিনোদন ডেস্ক : একসঙ্গে কানাডায় উড়াল দিলেন চলচ্চিত্র ও নাট্যজগতের জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী এবং নাট্যকার বৃন্দাবন দাসের স্ত্রী শাহনাজ খুশি। উদ্দেশ্য অন্যকিছু নয়, অভিনয়। কানাডার টরেন্টোতে বসবাসরত প্রতিবন্ধী ও অসহায় নারীদের সহায়তায় দুটি মঞ্চ নাটকে অভিনয় করবে জনপ্রিয় এ জুটি।

দুটি নাটকই রচনা করেছেন নাট্যকার বৃন্দাবন দাস। টরন্টোতে আয়োজিত মিউজিক্যাল শো-তে দেখানো ‘ভূতের সর্গ’ এবং ‘মাটির টানে’ নাটক দুটিতে পৃথকভাবে অভিনয় করবেন চঞ্চল চৌধুরী ও শাহনাজ খুশি। আগামী ১৪ ও ১৫ অক্টোবর দেখানো হবে নাটক দুটি। মিউজিক্যাল শো-তে অংশ নিতে মঙ্গলবার রাত ২টার দিকে কানাডার উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়েন তারা।

এ ব্যাপারে চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘দশ বছর আগে কানাডার মন্ট্রিয়লে একটি মিউজিক্যাল শোতে অংশ নিয়েছিলাম। এবার প্রথমবারের মতো মঞ্চনাটক নিয়ে কানাডায় যাচ্ছি। একজন মঞ্চকর্মী হিসেবে এটি আমার গর্বের ও আনন্দের বিষয়। ভালোলাগার বিষয় হলো, আমরা দু’জনই প্রতিবন্ধী শিশু এবং অসহায় নারীদের সাহায্যে অবদান রাখতে পারব।’

অন্যদিকে শাহনাজ খুশী বলেন, ‘আমরা যে দুটি নাটক নিয়ে যাচ্ছি, দর্শকের কাছে তা উপভোগ্য হবে। ‘মাটির টানে’ শুরুর দিকে হাস্যরসাত্মক হলেও শেষের দিকে ভীষণ আবেগী। আর ‘ভূতের স্বর্গ’ নাটকের বক্তব্য খুবই জোরালো।’

নাট্য জগতে তুমুল জনপ্রিয় চঞ্চল চৌধুরী ও শাহনাজ খুশি জুটি। একসঙ্গে বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করেছেন তারা। তাদের বেশিরভাগ নাটকের রচয়িতা এবং পরিচালক শাহনাজ খুশির স্বামী নাট্যকার ও অভিনেতা বৃন্দাবন দাস। গেল ঈদেও একসঙ্গে জুটি বেধে ‘রসু চোর’ শিরোনামের একটি নাটকে অভিনয় করেন চঞ্চল ও খুশি। হাস্যরসাত্মক ঘরানার নাটকটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায় ইউটিউবসহ অন্যান্য সাইটে।