খুলনায় প্রস্তুত ৩৪৯ আশ্রয়কেন্দ্র, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল

জেলা প্রতিনিধি : ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ মোকাবিলায় খুলনায় ৩৪৯টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। একই সাথে সব সরকারি দফতরের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।
শুক্রবার (৮ নভেম্বর) বিকালে খুলনা সার্কিট হাউেজ খুলনা জেলার জরুরি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন। এসময় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিজ নিজ এলাকায় অবস্থান ও প্রয়োজনীয় তদারকিসহ পর্যবেক্ষণ কার্যক্রম পরিচালনার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
সভা শেষে জেলা প্রশাসক বলেন, দুর্যোগ মোকাবিলার জন্য খুলনায় সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এরই মধ্যে তৃণমূল পর্যায় থেকে সভা-সমাবেশ ও বৈঠক সম্পন্ন হয়েছে। দুর্যোগ পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবিলায় চিড়া, গুড়, মুড়িসহ পর্যাপ্ত পরিমাণে শুকনো খাবার ও নগদ অর্থ মজুত রাখা হয়েছে।
পরিস্থিতি মনিটরিংয়ের জন্য জেলা প্রশাসকের দফতরে একটি জরুরি মনিটরিং কেন্দ্র খোলা হয়েছে। এছাড়া দুর্যোগ পরিস্থিতি মোকাবিলায় জেলার সব উপজেলায় একটি করে জরুরি কেন্দ্র খোলার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এসব কেন্দ্র থেকে দুর্যোগের আগে, দুর্যোগকালীন এবং দুর্যোগ শেষে পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ এবং কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত রয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন।
এদিকে ঘুর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ খুলনাঞ্চলে আঘাত হানার আশংকা থাকায় খুলনা সিটি কর্পোরেশনের (কেসিসি) পক্ষ থেকে সব ধরণের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। শুক্রবার বিকেলে নগর ভবনের জিআইজেড মিলনায়তনে দুর্যোগকালীন অথবা দুর্যোগ পরবর্তী ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় প্রস্তুতি গ্রহণের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত জরুরী সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।
সভায় কেসিসি’র জরুরী সেবা কাজে নিয়োজিত বিভাগসমূহের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল, দুর্যোগ বিষয়ে নগরবাসীকে সচেতন করার জন্য মাইকিং, স্কুল-কলেজের ভবনসমূহ আশ্রয় কেন্দ্র হিসেবে প্রস্তুত রাখা, মেডিকেল টিম গঠন, এ্যাম্বুলেন্স-ফায়ার সার্ভিসসহ জরুরী সেবাকর্মে নিয়োজিত বিভাগগুলিকে প্রস্তুত রাখা, জরুরী ত্রাণ সামগ্রী ও শুকনো খাবার প্রস্তুত রাখার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। সিটি মেয়র দুর্যোগকালীন ও দুর্যোগ পরবর্তী ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় সর্বাত্মক প্রস্তুতিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নির্দেশ দেন।
জানা গেছে, নগর ভবনের ২য় তলায় কন্ট্রোল রুম খোলাসহ (কন্ট্রোল রুমের ফোন নম্বর ০৪১-২৮৩২৯৭৭) দুর্যোগকালীন ও দুর্যোগ পরবর্তী সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের জন্য নগরীর ৩১টি ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয় প্রস্তুত রাখার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সভায় দুর্যোগকালীন যে কোন প্রয়োজনে কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করার জন্য নগরবাসীর প্রতি আহবান জানানো হয়েছে।