খালেদার চিকিৎসা শুরু হয়েছে: বিএসএমএমইউ

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে ভর্তি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও চিকিৎসা শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালটির অতিরিক্ত পরিচালক নাজমুল করিম। যদিও একদিন আগে বিএনপিনেত্রীর চিকিৎসা শুরু করতে অন্তত দুই সপ্তাহ সময় লাগবে বলে জানিয়েছিল মেডিকেল বোর্ড।

বুধবার বিকাল পাঁচটার দিকে খালেদার চিকিৎসা সংক্রান্ত এক প্রশ্নে নাজমুল করিম বলেন, ‘তার (খালেদা) চিকিৎসা শুরু হয়েছে। বিভিন্ন স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হচ্ছে।’

তবে মঙ্গলবার খালেদার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড জানিয়েছিল, বিএনপিনেত্রীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে মূল চিকিৎসা শুরু করতে অন্তত দুই সপ্তাহ লাগবে।

এরপর চিকিৎসা কীভাবে শুরু হলো জানতে চাইলে নাজমুল এ বিষয়ে আর কোনও তথ্য জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

বলেন, ‘এটা সম্পূর্ণ কর্তৃপক্ষের ব্যাপার। আমরা এই তথ্য মিডিয়ায় প্রকাশ করতে রাজি নই।’

এসময় তার সঙ্গে হাসপাতালের পরিচালক আব্দুল্লাহ আল হারুন সহমত প্রকাশ করে বলেন, ‘আমরা এ ব্যাপারে (খালেদার চিকিৎসা) কোনও কথা বলব না।’

এর আগে মঙ্গলবার মেডিকেল বোর্ড থেকে জানানো হয়, বুধবার বিকালে তারা খালেদা জিয়ার সাথে দেখা করে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা-নিরীক্ষার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন। একই সঙ্গে এও বলা হয়েছিল, খালেদা জিয়া নানা রকম অসুখে ভুগছেন। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা হবে যে তিনি নতুন চিকিৎসা নিতে পারবেন কি না, বা কী ধরনের চিকিৎসা নিতে পারবেন। এই জন্য মূল চিকিৎসা শুরু করতে কমপক্ষে দুই সপ্তাহ বা তারও বেশি সময় লেগে যেতে পারে।

প্রসঙ্গত, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় পাঁচ বছরের কারাদণ্ড হওয়ার পর থেকে পুরনো ঢাকার সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি খালেদা জিয়া। তিনি আগে থেকেই নানা রোগে ভুগছিলেন। তবে কারাগারে যাওয়ার পর নতুন করে নানা সমস্যা দেখা দিয়েছে বলে অভিযোগ করে আসছিলেন তার দলের নেতা ও ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা। তারা বেসরকারি হাসপাতাল ইউনাইটেডে বিএনপি নেত্রীকে ভর্তির দাবি জানিয়ে আসছিলেন। তবে সরকার বঙ্গবন্ধু মেডিকেল অথবা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ভর্তির পক্ষে ছিল।

বিএনপির নেতারা এবং খালেদা জিয়াও একাধিকবার বলেছেন, ইউনাইটেড না হলে তিনি যাবেন না। পরে অবশ্য অ্যাপোলো হলে যাবেন বলে জানায় বিএনপি।

যদিও ৪ অক্টোবর বিএনপির রিট আবেদনে বিএনপি নেত্রীকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে ভর্তির নির্দেশ দেন হাইকোর্ট এবং এই যাত্রায় আর না করেননি খালেদা জিয়া।

গত শনিবার তাকে বিএসএমএমইউ হাসপাতালের কেবিন ব্লকের একটি কক্ষে ভর্তির পর হাইকোর্টের নির্দেশে মেডিকেল বোর্ডও পুনর্গঠন করা হয়।