ক্ষতিকর এনার্জি ড্রিংকসের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা আসছে

নিজস্ব প্রতিবেদক : বেভারেজের নামে স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর এনার্জি ড্রিংকস উৎপাদন ও আমদানির বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মান নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠান বিএসটিআই। এ ধরনের অনৈতিক কাজের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে উকিল নোটিশ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।আজ মঙ্গলবার শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর সভাপতিত্বে বিএসটিআইয়ের ৩১তম কাউন্সিল সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।শিল্প মন্ত্রণালয়ের উপপ্রধান তথ্য কর্মকর্তা আব্দুল জলিল এ তথ্য নিশ্চিত করেন।আব্দুল জলিল বলেন, কোম্পানিগুলো বেভারেজের লাইসেন্স নিয়ে এনার্জি ড্রিংকস উৎপাদন করছে। এসব ড্রিংকস স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এতে সহনীয় মাত্রার চেয়ে বেশি অ্যালকোহল রয়েছে। এগুলো পান করে যুবসমাজ নেশার দিকে ঝুঁকছে। যেসব কোম্পানি বেভারেজ উৎপাদনের লাইসেন্স নিয়ে এনার্জি ড্রিংকস উৎপাদন ও আমদানি করছে তাদের উকিল নোটিশ পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।
এ ছাড়া সভায় আরো কয়েকটি সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। দেশব্যাপী বাধ্যতামূলকভাবে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনের (বিএসটিআই) লোগোযুক্ত বাটখারা ব্যবহার এবং দৈর্ঘ্য পরিমাপের জন্য মিটার পদ্ধতি চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ২০১৮ সালের জুন মাসের মধ্যে এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে।
সভায় জানানো হয়, সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলো থেকে সরবরাহকৃত গ্যাসের পরিমাপের সঠিকতা যাচাইয়ের জন্য বিএসটিআই ইতোমধ্যে একটি প্রকল্পের আওতায় সাতটি সিএনজি মাস্টার মিটার কিনেছে। এসব মিটারের মাধ্যমে সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলোতে ফ্লো-কন্ট্রোলিং ডিভাইস টেম্পারিং করে ভোক্তা সাধারণকে ঠকানো হচ্ছে কি না তা সরেজমিনে পরীক্ষা করা হবে। একই সাথে তিতাস গ্যাস কোম্পানি থেকে সিএনজি ফিলিং স্টেশনগুলো সঠিক পরিমাপে গ্যাস পাচ্ছে কি না তাও তদারক করা হবে।সভায় জননিরাপত্তা এবং ভোক্তা সাধারণের জন্য মানসম্মত পণ্যের নিশ্চয়তা দিতে ২৯টি নতুন পণ্য বিএসটিআই এর বাধ্যতামূলক সার্টিফিকেশন মার্কস (সিএম) লাইসেন্সের আওতায় আনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।