ক্লাস না নিয়ে কোচিং-প্রাইভেট পড়ালে ব্যবস্থা: দুদক

চাঁদপুর প্রতিনিধি : স্কুলে শ্রেণিকক্ষে না পড়িয়ে কোচিং বা প্রাইভেট পড়ালে ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ। তিনি একে শিক্ষায় দুর্নীতি হিসেবে দেখছেন।

স্কুল চলাকালে সময়ে উপজেলা অফিসে আসলে সংশ্লিষ্ট শিক্ষক ও বিভাগীয় প্রধানের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারিও দেন দুদক প্রধান।

বৃহস্পতিবার চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছিলেন দুদক চেয়ারম্যান। ‘দুর্নীতিমুক্ত সরকারি সেবা, দুর্নীতির অভিযোগের প্রকৃতি’ বিষয়ে উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি ও সংবাদকর্মীদের নিয়ে হয় এই আলোচনা।

দুদক চেয়ারম্যান বলেন, টেস্ট পরীক্ষায় কোন বিষয়ে ফেল করলে আবার পরীক্ষা নিয়ে পাস দেখানো এবং পরীক্ষার ফরম পূরণে বোর্ড নির্ধারিত ফির অতিরিক্ত আদায় হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শিক্ষা, বিশেষ করে প্রাথমিক শিক্ষায় দুর্নীতি হলে দেশ ও জাতি ধ্বংস হয়ে যাবে মন্তব্য করে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ‘প্রাথমিক ও উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষা ক্ষেত্রে দুর্নীতি কঠোর হাতে দমন করা হবে।’ এ সময় তিনি উপজেলার প্রত্যেকটি স্কুলে সততা স্টোর চালুর পরামর্শ দেন।

দুর্নীতিবাজরাই সমাজ ও দেশের উন্নয়নে সবচেয়ে বড় বাধা উল্লেখ করে দুদক চেয়ারম্যান বলেন, ‘তাই দুর্নীতি প্রতিরোধ করাটাই এখন বড় লক্ষ্য।’

দুদক মহাপরিচালক (প্রতিরোধ) জাফর ইকবাল, চাঁদপুর জেলা প্রশাসক আব্দুস সবুর ম-ল, ফরিদগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ এইচ এম মাহফুজুর রহমান, ফরিদগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সাহেদ সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান ওয়াহিদুর রহমান রানা, পৌর মেয়র মাহফুজুল হক, চাঁদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহ আলম প্রমুখ এ সময় উপস্থতি ছিলেন।
সভা শেষে দুদক চেয়ারম্যান উপজেলার চরবড়ালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সাহেবগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ও হাঁসা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পরিদর্শনে যান। এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদেরকে দুর্নীতি প্রতিরোধে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।