ক্যালিফোর্নিয়ার দাবানলে নিহত ৫৬, নিখোঁজ ১৩০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের ভয়াবহতম দাবানলে নিহতের সংখ্যা ৫৬-তে পৌঁছেছে। এর মধ্যদিয়ে এ অঙ্গরাজ্যের দাবানলের ইতিহাসে মৃতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেল। খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

ক্যালিফোর্নিয়ার উত্তরাঞ্চলের শহরগুলোতে ধ্বংসস্তূপ থেকে নিহতদের উদ্ধারে তল্লাশি অভিযান চালায় জাতীয় গার্ড বাহিনী। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৫৬ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনও নিখোঁজ রয়েছে ১৩০ জনের বেশি মানুষ। যাদের বেশিরভাগেরই বয়স ৬৫ বছরের বেশি।

গত বৃহস্পতিবার সানফ্রান্সিসকো থেকে প্রায় ২৮০ কিলোমিটার উত্তরে প্যারাডাইস শহরের সিয়েরা ফুটহিলসে আগুনে সূত্রপাত। আত্মীয়স্বজনের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ১৩০ জন নিখোঁজ হওয়ার একটি সংশোধিত তালিকা গতকাল প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ।

আনা ডিজে নামে এক নারী জানান, আগুনের গতি অত্যন্ত বেশি। দাবানলে তার ৬৬ বছর বয়সী বাবা মারা গেছেন। তিনি জানান, দাবানল থেকে বাঁচতে তারা খুব অল্প সময় পেয়েছেন; ওই সময়ের মধ্যে তারা ঘর-বাড়ি ছাড়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু গোছানো জিনিসপত্র আনতে ঘরের ভেতরে গেলে তা ধসে পড়ে এবং তার বাবা মারা যান।

আনা বলেন, আগুনের হাত থেকে বাঁচতে তিনি তার কুকুরকে নিয়ে প্রতিবেশীদের পুকুরে রাত কাটিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘আমি ধারণা করতে পারিনি আগুন এতটা তীব্র গতিতে ধেয়ে আসবে।’ তিনি বলেন, আগুনে টায়ার গলে যাওয়ায় তিনি গাড়ি নিয়ে কোথাও যেতে পারেননি।

ক্যালিফোর্নিয়ার দাবানলে এ পর্যন্ত প্রায় আট হাজার ঘরবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ধ্বংস হয়েছে। এছাড়া, লাখ লাখ একর ভূমি পুড়ে গেছে।

এর আগে ১৯৩৩ সালে লস অ্যাঞ্জেলেসের গ্রিফিত পার্কে ভয়াবহ দাবানলে ২৯ জন নিহত হয়েছিল। চলমান দাবানলের ক্ষয়ক্ষতির জন্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প স্থানীয় কর্তৃপক্ষের অব্যস্থাপনাকে দায়ী করেছেন।