কোটা বহালের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ

ইবি প্রতিনিধি : প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহালের দাবি ও বাতিলের প্রতিবাদে তৃতীয় দিনের মত কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ অব্যহত করে রেখেছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানরা।

রবিবার দুপুর ১২টা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত ‘আমরা মুক্তিযোদ্ধার সন্তান’ ব্যানারে ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকের সামনে সড়কে দীর্ঘ চার ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে তারা। ফলে সড়কের উভয় দিকে সৃষ্টি হয় তীব্র যানজট।

জানা যায়, সরকারি চাকরিতে ৩০ শতাংশ কোটা প্রথা বহালের দাবিতে দীর্ঘ চার ঘণ্টা কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করে শিক্ষার্থীরা। এক পর্যায়ে সড়কে আগুন জ্বালিয়ে দেন তারা। অবরোধের ফলে সড়কের উভয় পাশে তীব্র যানজট সৃষ্টি হয়। ক্যাম্পাসের শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং কর্মকর্তা-কর্মচারী বহনকারী দুইটা গাড়ি আটকা অবরোধের ফলে পড়ে যায়। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়েন শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং সড়কের উভয় দিকের যাত্রীরা। পরে ঘটনাস্থলে প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমান এবং ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রতন শেখ গিয়েও অবরোধ তুলে দিতে ব্যর্থ হয়। পরে বিকাল চারটার দিকে অবরোধ প্রত্যাহার করেন শিক্ষার্থীরা।


আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানান, সরকারি চাকরিতে শতকরা ৩০ ভাগ মুক্তিযোদ্ধা কোটা বহাল রাখতেই হবে। অন্যথায় আন্দোলন আরো কঠিন আকার ধারণ করবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার ও শনিবার একই দাবিতে কুষ্টিয়া-খুলনা মহাসড়ক অবরোধ করেছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানরা।