কিছুদিনের মধ্যেই বাড়ি ফিরবে মুক্তামনি

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিরল রোগে আক্রান্ত সাতক্ষীরার শিশু মুক্তামনি এখন অনেকটা ভালো, সে কিছুদিনের মধ্যেই পরিবারের সঙ্গে বাড়ি ফিরবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।বৃহস্পতিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মুক্তামনিকে দেখতে যান মন্ত্রী। পরে তিনি সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তামনির চিকিৎসার বিষয়ে নিয়মিত খোঁজখবর নিচ্ছেন। কিছুদিনের মধ্যেই সে পরিবারের সদস্যদের সাথে বাড়ি ফিরে যাবে।মন্ত্রী বলেন, ‘সীমিত সম্পদের মধ্যেও আমাদের চিকিৎসকরা আন্তরিকতার সঙ্গে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। তরুণ ও প্রবীণ অভিজ্ঞ চিকিৎসকেরা তাদের মেধার পরিচয় দিচ্ছেন। তোফা-তহুরার অপারেশনসহ নানা জটিল চিকিৎসায় তারা সফল হয়েছেন।’রাজধানীর চানখাঁরপুলে শেখ হাসিনা ন্যাশনাল বার্ন ইনস্টিটিউট নির্মাণ কাজ শেষ হলে দেশবাসী আরও ভালো চিকিৎসাসেবা পাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।এসময় তিনি গণমাধ্যম কর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘গণমাধ্যম কর্মীদের দায়িত্বশীলতার জন্যই চিকিৎসকরা উৎসাহ পেয়েছে।’ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, বিদেশের চেয়ে বাংলাদেশে স্বল্পমূল্যে চিকিৎসাসেবা হয়। চিকিৎসকদের আরো সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করলে তারা ভালোমানের সেবা সুনিশ্চিত করবে।সাতক্ষীরার সদর উপজেলার কামারবায়সা গ্রামের মুদি দোকানি ইব্রাহিম হোসেনের শিশু কন্যা মুক্তামনি বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে ডান হাত ফুলে বিকট আকার ধারণ করে। দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়েও তার কোনো চিকিৎসা হয়নি। পরে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করে সরকারি ব্যবস্থাপনায় চিকিৎসার উদ্যোগ নেয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মুক্তামনির চিকিৎসার সব দায়িত্ব নেন। মুক্তামনির চিকিৎসায় ১৪ সদস্যের টিম গঠন করা হয়। এ টিমের মধ্যে প্রফেসর এম.এ খান, প্রফেসর মোজাফফর হোসেন, প্রফেসর আবুল কালাম আজাদের মতো চিকিৎসক রয়েছেন। ইতোমধ্যে মুক্তামনির তৃতীয় দফায় অপারেশন হয়েছে। তার অবস্থা অনেকটা ভালোর দিকে।