কালো থেকে ফর্সা হয়েছেন যেসব নায়িকা

বিনোদন ডেস্ক : বিশ্বজুড়েই কালো এবং ফর্সা রঙের সমীকরণটা খুবই গোলমেলে। বিশেষ করে, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে সুন্দরী মানেই ফর্সা ও পেলব ত্বকের অধিকারী। এসব যাদের রয়েছে তাদেরকেই সুন্দরী তকমা সেঁটে দেয়া হয়। ব্যতিক্রম নয় বলিউডও। রঙ বৈষম্যের শিকার হয়ে বাধ্য হয়ে সার্জারি এবং স্কিন ট্রিটমেন্ট করিয়ে কালো থেকে ফর্সা হয়েছেন এমন নায়িকার উদাহরণ বলিউডে ভুরি ভুরি। চলুন দেখে নেয়া যাক এমনই কয়েকজন নায়িকাকে।


কাজল:
বলিউডের সুপারহিট নায়িকাদের অন্যতম কাজ। মেলানিন সার্জারি করিয়ে বি-টাউনে সবচেয়ে বেশি সমালোচিত হয়েছেন তিনিই। শুরুতে সুন্দরী হিসেবে তার পরিচিতি ছিল কালো রঙের জন্যই। বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানের বিপরীতে ‘বাজিগর’ছবিতে নিজের সত্যিকার রূপেই ধরা দিয়েছিলেন কাজল। কিন্তু ক্রমশ সেই রঙের বদল হতে থাকে। বর্তমানে নিজের দুধে-আলতা রঙের রহস্য প্রকাশ্যে আনেননি নায়িকা। তবে মিডিয়ার দাবি, মেলানিন সার্জারি করিয়ে স্থায়ীভাবে ত্বকের রঙ বদলে ফেলেছেন কাজল।


প্রিয়াংকা চোপড়া:
বিশ্ব সুন্দরীর খেতাব জেতা ‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রিয়াংকা আর বর্তমানের প্রিয়াংকার মধ্যে বেশ অনেকটাই ফারাক। গুঞ্জন রয়েছে, বারংবার সার্জারি করিয়ে গায়ের রঙ ফর্সা করিয়েছেন নায়িকা। তবে শুধু রং নয়, তার চেহারাতেও এসেছে অনেক বদল। রহস্যটা কী? এ বিষয়ে মুখ খোলেননি নায়িকা। অবশ্য অনেকে মনে করেন, গায়ের রঙ কালো হওয়ায় একটি ছবি থেকে বাদ পড়েছিলেন প্রিয়াংকা। তারপরই রঙ ফর্সা করতে উঠেপড়ে লাগেন কোয়ান্টিকো হিরোইন।


শিল্পা শেট্টি:
লক্ষ্য করলেই দেখা যাবে, ক্যারিয়ারের শুরুর দিকের শিল্পা এবং বর্তমানের কুন্দ্রা ঘরণী শিল্পার মধ্যে আকাশ-পাতাল ব্যবধান। বি-টাউনে গুঞ্জন, সার্জারি করিয়ে তামাটে থেকে ফর্সা রঙের হয়েছেন এই বলি ডিভা। তবে নায়িকার দাবি, সার্জারি নয় এটা নিছকই নাকি ‘প্রেগন্যান্সি গ্লো।’


বিপাসা বসু:
২০০৫ এবং ২০০৭ সালে এশিয়ার ‘সেক্সিয়েস্ট ওম্যান’-এর খেতাব জিতেছিলেন বি-টাউনের ‘ডাস্কি বিউটি’ বিপাসা। নিন্দুকদের মুখ বন্ধ করতে, নিজের গায়ের রঙের জন্য তিনি গর্বিত বলেও জানিয়েছিলেন নায়িকা। কিন্তু তারপর? সিলিকন সার্জারি থেকে ‘স্কিন লাইটনিং ট্রিটমেন্ট’- ফর্সা এবং আকর্ষণীয় হয়ে উঠতে কোনো কিছুই বাদ রাখেননি নায়িকা।


রেখা:
চিরযৌবনা রেখার গায়ের রং নিয়ে অনেক চর্চা হয়েছে বলিউডে। নায়িকা নিজেই জানিয়েছিলেন, অভিনয় জগতে পা রাখার পরে নিজের গায়ের রঙ নিয়ে অনেক মন্তব্য এবং সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল তাকে। সার্জারির কথা প্রকাশ্যে না আনলেও, পরবর্তীকালে কৃষ্ণবর্ণা রেখার চেহারায় এবং গায়ের রঙে অনেক বদল দেখা গেছে।

হেমা মালিনী:

বলিউডের ‘ড্রিম গার্ল’খ্যাত নায়িকা হেমা মালিনীও কিন্তু কৃষ্ণবর্ণা ছিলেন। চমকে যাওযার মতোই কথা। গুঞ্জন রয়েছে, এই কালো রঙের কারণেই নাকি ক্যারিয়ারের শুরুতে ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পেতে বেশ অসুবিধা হতো নায়িকার। শোনা যায়, সার্জারি করিয়ে পরে ত্বকের রঙ বদলে ফেলেন ধর্মেন্দ্রর স্ত্রী হেমা। সূত্র: আনন্দবাজার

 

Inline
Inline