কালীগঞ্জে কালী প্রতিমা ভাংচুরের দায়ে গ্রেফতারকৃত আসামিকে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ

বিশেষ সংবাদ দাতা, কালীগঞ্জ (গাজীপুর)   ঃ গত ০৩/১১/২০১৯ খ্রীস্টাব্দে রবিবার বিকালে গাজীপুর,  কালীগঞ্জ থানাধীন, করান (সুজাপুর) গ্রামের হিন্দুদের শ্রী শ্রী কালী মন্দিরের কালী প্রতিমা ভাংচুর করা হয়েছে।স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানাযায়, হীরন নামের একজন সন্ত্রাসী এই প্রতিমা ভাংচুর করে। এর আগেও বিভিন্ন সময়ে সন্ত্রাসী হীরন করান এলাকায় দাঙ্গা-হাঙ্গামা করেছিলো এবং কালীগঞ্জ থানায় একাধিক মামলাও রয়েছে তার নামে। স্থানীয়রা বলছে আমরা সংখ্যা লঘু হিন্দু তাই  আমাদের দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে, জমি দখল করার জনই এই প্রতিমা ভাংচুর করা হয়েছে। ঘটনার সত্যতা স্বরুপ সন্ত্রাসী হীরনের মোটরসাইকেলের চাবিও ঘটনাস্থল থেকে পাওয়া যায়। মাদক সেবন করে সন্ত্রাসী হীরন প্রতীমা ভাংচুর করে এবং সংখ্যা লঘু হিন্দুদের অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে।কালীগঞ্জ থানাধীন উলুখোলা পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এস.আই রুপন সরকার খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হন এবং প্রতিমা ভাংচুরের ঘটনার সত্যতা যাচাই করে ঐ স্থান হতে সন্ত্রাসী হীরনকে গ্রেফতার করে কালীগঞ্জ থানায় নিয়ে যায়। ঘটনার পর ঐ একই তারিখে রাত ১০ টার দিকে খবর পেয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ এর সাধারণ সম্পাদক কাজী হারুন অর রশিদ টিপু,নাগরী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক অলিউল ইসলাম অলিসহ আরও নেতৃবৃন্দরা ঘটনা স্থল পরিদর্শন করেন এবং ঘটনার সত্যতা যাচাই করেন।নেতৃবৃন্দরা সংখ্যা লঘু হিন্দুদের উদ্দেশ্যে বলেন আপনারা নিজেদেরকে সংখ্যা লঘু ভাবেননা আমরা আপনাদের পাশেই আছি,অপরাধী সে যেই হোক,যত বড় শক্তিশালীই হোক তাকে ছাড় দেওয়া হবেনা। ইতোমধ্যে ৩/১১/২০১৯, মামলা নাম্বার ৪, ধরা ২৯৫ ধর্মের প্রতি আঘাত দায়ের করে, ৪/১১/২০১৯ ইং সোমবার সন্ত্রাসী হীরন অর্থাৎ কালী প্রতিমা ভাংচুরকারীকে কালীগঞ্জ থানা হতে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।