কার দখলে যাচ্ছে দিল্লি? মোদি নাকি রাহুল? জানাচ্ছে বুথ ফেরত জরিপ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ম্যারাথন ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছিল গত ১১ এপ্রিল। এক মাসেরও বেশি সময় ধরে সাত দফায় দেশটির ৫৪২ আসনে ভোটগ্রহণ শেষ হচ্ছে আজ আর কিছুক্ষণ পর। তামিলনাড়ুর ভেল্লোরে ভোটগ্রহণ স্থগিত করায় ৫৪৩ আসনের পরিবর্তে এখন হিসেব চলছে ৫৪২ আসনের। ভারতের জাতীয় নির্বাচন কমিশনের সূচি অনুযায়ী আজ সন্ধ্যা ৬টায় শেষ হচ্ছে ভোটগ্রহণ।

কিন্তু কার দখলে যাচ্ছে নয়াদিল্লি? ফের কি প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে ঘাঁটি গাড়বেন নরেন্দ্র মোদি? নাকি সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর সাত রেসকোর্স রোডে প্রধানমন্ত্রীর বাড়ির দখল নেবেন রাহুল গান্ধী? নাকি বিরোধী আঞ্চলিক দলগুলোর পক্ষে অন্য কেউ বসবেন প্রধানমন্ত্রীর আসনে? সেই উত্তর জানতে আনুষ্ঠানিক ফলের জন্য অপেক্ষা করতে হবে আগামী ২৩ মে পর্যন্ত। কিন্তু তার আগেই আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার পর থেকেই বুথ ফেরত সমীক্ষায় পাওয়া যাবে ইঙ্গিত। অনেক সময়ই নির্বাচনী ফলাফলের সঠিক পূর্বাভাস মিলে যায় এসব বুথ ফেরত সমীক্ষায়।

২০১৪ লোকসভা নির্বাচনে ভোটগণনার আগেই একটি সমীক্ষার ফলাফলের সঙ্গে প্রায় মিলে গিয়েছিল চূড়ান্ত ফল। ‘টুডে’জ চানক্য’ সমীক্ষায় বলা হয়েছিল, এনডিএ পেতে চলেছে প্রায় ৩৪০টি আসন। পাশাপাশি বলা হয়েছিল, বিজেপি পেতে চলেছে ২৯১ আসন। পরে দেখা যায়, এই ভবিষ্যদ্বাণীর সঙ্গে আসল ফলাফলের তেমন কোনো ফারাক নেই। ‘টুডে’জ চানক্য’ ফল মিলিয়ে দিলেও অনেকেই আবার আসল ফলাফলের ধারেকাছেও পৌঁছাতে পারেনি।

১৭ তম লোকসভা নির্বাচনেও আজকেই বুথ ফেরত জরিপে ইঙ্গিত পাওয়া যাবে কার দখলে যাচ্ছে নয়াদিল্লি। সন্ধ্যার পর থেকেই দেশটির বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ পাবে বুথ ফেরত সমীক্ষার ফলাফল। এই লোকসভা নির্বাচনে বিভিন্ন সমীক্ষা সংস্থার সঙ্গে চুক্তি করেছে দেশটির বেশকিছু সংবাদ মাধ্যম।

নির্বাচনী ফলাফলের আভাস পাওয়া যাবে এবিপি-সিএসডিএস, নিউজ ১৮- আইপিএসওএস, ইন্ডিয়া টুডে-অ্যাক্সিস, টাইমস নাও-সিএনএক্স, নিউজ এক্স-নেতা, রিপাবলিক-জন কি বাত, রিপাবলিক-সিভোটার এবং টুডে’জ চাণক্যর করা বুথফেরত সমীক্ষা থেকে।

বুথ ফেরত সমীক্ষার কাজ শুরু হয়ে যায় প্রথম দফার ভোটগ্রহণের পরই। ভোট দিয়ে বেরনোর পর যারা ভোট দিয়েছেন তাদের সঙ্গে কথা বলেই কী ফলাফল হতে চলেছে তার একটা আন্দাজ পাওয়ার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু সব কয়েটি দফার ভোটগ্রহণ শেষ না হওয়া পর্যন্ত সেই ফলাফল প্রকাশ করা হয় না। কারণ তা প্রভাবিত করতে পারে, যেখানে ভোট তখনও হয়নি, সেখানকার ভোটারদের।

এই কারণেই বুথ ফেরত সমীক্ষার কাজ শুরু হয়ে গেলেও তা নিজেদের কাছেই রাখে সংবাদ মাধ্যমগুলো। ভারতের এবারের নির্বাচনেও বুথ ফেরত সমীক্ষার কাজ শুরু হয়েছে ১১ এপ্রিল থেকেই। কিন্তু তা সামনে আসবে আজ সন্ধ্যায়, সপ্তম তথা শেষ দফার নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার পরই।

কারণ, ১৯ মের আগে বুথফেরত সমীক্ষার ফল প্রকাশ করতে পারবে না কোনো টেলিভিশন, রেডিও, কেবল নেটওয়ার্ক, ওয়েবসাইট কিংবা সোশ্যাল মিডিয়া। এমন নির্দেশ ছিল দেশটির নির্বাচন কমিশনের।

তবে চূড়ান্ত ফলাফলে কী হচ্ছে তা ২৩ মে জানা গেলেও, দেশটির নাগরিকদের মন বুঝতে আপাতত ভরসা বুথ ফেরত সমীক্ষা। আজ সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টা থেকেই সামনে আসবে দিল্লির তখ্ত কার কাছে যাচ্ছে তার ইঙ্গিত। আনন্দবাজার