কারাবন্দী বিএনপি নেতা খোকনকে শেষবার দেখতে মায়ের আকুতি

একাদশ নির্বাচনে নরসিংদী-১ আসনে বিএনপির প্রার্থী ও দলের যুগ্ম মহাসচিব কারাবন্দী খায়রুল কবির খোকনকে শেষবারের মতো দেখতে চান জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে থাকা তার মা। অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মা জহুরা বেগমের পক্ষে শনিবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছেন তার সন্তানরা।

খায়রুল কবিরের ৫ ভাইবোন বিবৃতিতে মানবিক কারণে খায়রুল কবিরকে মুক্তি দিতে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।পাশাপাশি তার মামলাগুলো প্রত্যাহারের দাবি জানান।

 

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, খোকন দীর্ঘদিন ধরে কারাবন্দী থাকায় তার ৯০ বছর বয়স্ক মা জহুরা বেগম মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন।তিনি এখন হাসপাতালের শয্যায় জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। জহুরা বেগম আদরের ছেলেকে শেষবারের মতো দেখে যেতে চান।বারবার ছেলের কথা বলছেন।

 

এমতাবস্থায় দ্রুত খোকনকে মুক্তি দিতে প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করে তার পরিবার।

 

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, বিএনপি নেতা খায়রুল কবির খোকন কিছু ‘গায়েবি’ মামলায় দীর্ঘদিন ধরে কারাবন্দী। আমরা নিশ্চিতভাবে জানি আমাদের ভাইয়ের পক্ষে এসব মামলার আসামি হওয়ার মতো নিষ্ঠুর স্বভাব কখনই ছিল না। এখনও নেই। তবু তার জামিন হচ্ছে না, যা খুবই বেদনাদায়ক।

 

বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন খোকনের বড় ভাই মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ রশিদুজ্জামান রুনু, বড় বোন হাবিবুন্নাহার বেগম ও দিলারা বেগম, ছোট বোন মিসেস নিলুফা ইয়াসমিন এবং ছোট ভাই মো. জাকারিয়া কবির।

 

প্রসঙ্গত, খায়রুল কবির খোকন নরসিংদী জেলা বিএনপির সভাপতি ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব। তিনি একাদশ নির্বাচনে নরসিংদী-১ আসনে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী ছিলেন। নির্বাচনের কিছুদিন আগে তিনি গ্রেফতার করেন। জেলে বসেই তাকে ভোট করতে হয়েছে।