এ বছরই দৃশ্যমান হবে রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ঃ স্বাস্থ্যমন্ত্রী

এ বছরের মধ্যেই রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (রামেবি) দৃশ্যমান হবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

বুধবার সকালে রাজশাহীর স্বাস্থ্য বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে মন্ত্রী এ কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, রামেবির প্রশাসনিক, অ্যাকাডেমিক ও হাসপাতাল ভবন নির্মাণে দেড় হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এখন ভূমি অধিগ্রহণসংক্রান্ত কিছু সমস্যা রয়েছে। সেগুলো কাটিয়ে এ বছরের মধ্যেই নির্মাণ শুরু হবে। এর মধ্যে দিয়ে দৃশ্যমান হবে রামেবি। এটি রাজশাহীর মানুষের জন্য সবচেয়ে বড় উপহার।

মন্ত্রী বলেন, আগে দেশে একটিমাত্র মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় ছিল। আমরা সেটি বৃদ্ধির পরিকল্পনা করি। এটি এখন স্বপ্ন নয়, বাস্তবায়ন হয়েছে। চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় দিয়েছি। সিলেটেও পরিকল্পনা আছে। পর্যায়ক্রমে সব বিভাগীয় শহরে মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় করা হবে।

নাসিম জানান, আগামি বছরের মধ্যেই উত্তরাঞ্চলের স্বাস্থ্য বিভাগের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে রামেবির অধিভুক্ত করতে সরকার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। দ্রুত কাজ বাস্তবায়ন করতে রামেবিতে দ্রুত উপাচার্য নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। অস্থায়ী ভবনে হলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ শুরু হয়েছে। রামেবির শিক্ষা ও সেবা কার্যক্রম শুরুর পর উত্তরবঙ্গের কোনো মানুষকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা যেতে হবে না।

রামেক হাসপাতালের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এ সভায় মন্ত্রী রাজশাহী ডেন্টাল কলেজ চালু করতে দ্রুত প্রকল্প পরিচালক নিয়োগের ঘোষণা দেন। পাশাপাশি ১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের একটি চারতলা ভবনকে ১০ তলায় উন্নীত এবং এক কোটি টাকা ব্যয়ে রামেকের ডা. কাইছার রহমান মিলনায়তন আধুনিকায়ন করা হবে বলেও জানান তিনি।

সভায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম ঠান্ডু, এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, রামেক হাসপাতাল পরিচালনা কমিটির সভাপতি ফজলে হোসেন বাদশা এমপি, রামেবির উপাচার্য ডা. মাসুম হাবিব, রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জামিলুর রহমান চৌধুরী, বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান, রামেকের অধ্যক্ষ ডা. আনোয়ার হাবিব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।