এসইপি প্রকল্পে বিশ্বব্যাংকের ১১০ মিলিয়ন ডলার অনুমোদন

ঢাকা, ২০ মে, ২০১৮ : পরিবেশগতভাবে টেকসই ক্ষুদ্র উদ্যোগসমূহকে সহায়তা করতে পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) বাস্তবায়নাধীন ‘সাসটেইনেবল এন্টারপ্রাইজ প্রজেক্ট (এসইপি)’র জন্য বিশ্বব্যাংকের ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট অ্যাসোসিয়েশন (আইডিএ) ১১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের অর্থায়ন অনুমোদন করেছে।
এ বিষয়ে সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকার, পিকেএসএফ এবং বিশ্বব্যাংকের মধ্যে প্রকল্পটির ঋণ চুক্তি এবং প্রকল্প চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে।
পিকেএসএফ উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ফজলুল কাদের বলেন, প্রকল্পটি ব্যবসাগুচ্ছ ভিত্তিক সাব-সেক্টর চিহ্নিতকরণের মাধ্যমে ক্ষুদ্রউদ্যোগকে উৎসাহিত করবে। কৃষি ও উৎপাদনখাতের ৩০টি সাব-সেক্টরকে এই প্রকল্পের আওতায় বিবেচনা করা হবে।প্রাথমিকভাবে ৩০ টি লিড জেলায় প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে যার প্রাপ্ত ফলাফল পর্যায়ক্রমে অন্যান্য জেলাতেও প্রতিফলন আকারে বিস্তার ঘটানো হবে বলে তিনি জানান।
প্রকল্পটি ক্ষুদ্র-উদ্যোগ খাতে পরিবেশবান্ধব উৎপাদন প্রক্রিয়া এবং প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে বাংলাদেশে টেকসই উন্নয়নে সহায়তা করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
প্রকল্পটির আওতায় প্রায় ৪০ হাজার মাইক্রোএন্টারপ্রাইজকে ক্ষুদ্রঋণের পাশাপাশি বিভিন্ন ধরনের আর্থিক ও কারিগরী সহায়তা প্রদান করা হবে। যা পরিবেশগতভাবে টেকসই প্রযুক্তির ব্যবহারকে উৎসাহিত করবে। এতে স্বাস্থ্যসম্মত নিরাপদ কর্মক্ষেত্রে এবং নিরাপদ পরিবেশ বজায় থাকবে।
গত ২৯ মার্চ বিশ্বব্যাংক প্রকল্পটির জন্য ১১০ মিলিয়ন ডলার অনুমোদন করে। প্রকল্পের মোট বাজেট ১৩০ মিলিয়ন ডলার;এর মধ্যে বিশ্বব্যাংক ১১০ মিলিয়ন ডলার অর্থ সহায়তা প্রদান করবে এবং পিকেএসএফ ২০ মিলিয়ন ডলার প্রদান করবে। প্রকল্পটি পিকেএসএফের মনোনিত সহযোগি সংগঠনগুলোর মাধ্যমে ৫ বছরের মধ্যে বাস্তবায়িত হবে। প্রকল্পটির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে পিকেএসএফ-এর অর্থায়নকৃত।ক্ষুদ্র-উদ্যোগগুলোতে পরিবেশগত দিক থেকে টেকসই পদ্ধতির চর্চা রপ্ত করতে সহায়তা করা।

Inline
Inline