এমপিওভুক্তির আন্দোলনে অসুস্থ ১০, সিসিইউতে ১ শিক্ষক

নিজস্ব প্রতিবেদক : এমপিওভুক্তির দাবিতে রাজপথে টানা অবস্থান কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে ১০ জন শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাদের মধ্যে একজনকে জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালের করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) ভর্তি করা হয়েছে বলে আন্দোলনকারী শিক্ষক নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন।

আন্দোলনকারী শিক্ষক নেতৃবৃন্দ জানান, নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান একযোগে এমপিওর দাবিতে নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের উদ্যোগে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাতের জন্য কদম ফোয়ারা থেকে প্রেসক্লাবের গেট পর্যন্ত রোদ, ধুলাবালি, মশার কামড় উপেক্ষা করে খোলা আকাশের নিচে ৩০তম বারের মতো দিবারাত্রি অস্থান কর্মসূচি পালন করছেন তারা। সারাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখে প্রায় ২০ হাজার শিক্ষক-কর্মচারী এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করছেন।

তাদের এই টানা অবস্থানের চতুর্থ দিনে ১০ জন শিক্ষক অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। আন্দোলনের দ্বিতীয় দিনে বরগুনার তালতলী উপজেলার শিক্ষক শৈলেন চন্দ্র মজুমদার (৫০) স্ট্রোক করে জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে সিসিইউতে চিকিৎসাধীন আছেন।

নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যক্ষ গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, গতকাল (২২ মার্চ) রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে শিক্ষা সচিব সোহরাব হোসেনের আমন্ত্রণে শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধিদল তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করি। সাক্ষাৎকালে শিক্ষক নেতৃবৃন্দ তাকে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের ব্যবস্থা গ্রহণ করার অনুরোধ করলে, তিনি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবেন বলে জানান।

তিনি বলেন, রোদ, ধুলাবালি, মশার কামড় উপেক্ষা করে খোলা আকাশের নিচে ৩০ বারের মতো দিবারাত্রি কদম ফোয়ারার সামনে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাতের জন্য প্রহর গুণছেন নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীরা। এবার তারা প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ না পাওয়া পর্যন্ত বাড়ি ফিরবেন না। তবে শিক্ষামন্ত্রী যদি তাদের দাবি আদায়ে সুনির্দিষ্টভাবে দিনসময় ঘোষণা করেন তবে তারা ক্লাসে ফিরে যাবেন বলেও জানান তিনি।

শিক্ষক নেতৃবৃন্দ বলেন, শিক্ষকদের বাঁচা-মরার এই যৌক্তিক ও মানবিক আবেদন পূরণের জন্য প্রধানমন্ত্রীই আমাদের একমাত্র অবলম্বন। তাই প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাতের জন্য শিক্ষক-কর্মচারীরা চলমান কর্মসূচি গ্রহণ করতে বাধ্য হয়েছেন। আমরা নন-এমপিও শিক্ষক-কর্মচারীরা মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করে আমাদের বঞ্চনা-দুর্ভোগের বাস্তবচিত্র তুলে ধরতে পারলে, তিনি দীর্ঘদিনের ঝুলে থাকা নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো একযোগে এমপিওভুক্ত করে আমাদেরকে এই অনিশ্চয়তা থেকে অবশ্যই মুক্ত করবেন।

শনিবার অবস্থান কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন- বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা রাজেকুজ্জামান রতন, শিক্ষা বার্তার সম্পাদক এ এন রাশেদা।