এবার পরিবর্তন হল এবি ব্যাংকে

ইসলামী ব্যাংক ও সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের পর এবার পর্ষদে ব্যাপক পরিবর্তন এলো বেসরকারি খাতে দেশের প্রথম প্রজন্মের ব্যাংক এবিতে। পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংকটির চেয়ারম্যান এম ওয়াহিদুল হকসহ পরিচালনা পর্ষদের তিন সদস্য পদত্যাগ করেছেন।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে ব্যাংকটির বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) তাদের পদত্যাগপত্র অনুমোদিত হয়। পদত্যাগকারী অন্য দুই সদস্য হলেন- ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম আহমেদ ও ফাহিমুল হক। অবশ্য এই বার্ষিক সাধারণ সভায় ওয়াহিদুল হক উপস্থিত ছিলেন না।

এই সভাতেই নতুন চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার কথা রয়েছে এবি ব্যাংকের। তবে এই প্রতিবেদন প্রকাশ পর্যন্ত এই প্রক্রিয়া এখনও শেষ হয়নি।

২০০৭ সালের ডিসেম্বরে পরিচালক হিসেবে যোগদানের পর পরের মাসেই চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পান ওয়াহিদুল হক। এর থেকে চেয়ারম্যান হিসেবে টানা দায়িত্ব পালন করছেন তিনি।

চলতি বছর পুঁজিবাজার থেকে বিভিন্ন গ্রুপ শেয়ার কিনে ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদে নিজেদের জায়গা করে নেয়ার চেষ্টা করছেন। প্রথমে ইসলামী ব্যাংক এবং পরে সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকে এই প্রক্রিয়ায় মালিকানা বদল হয়েছে। এক্সিম এবং শাহজালাল ব্যাংকের ক্ষেত্রেও একই ধরনের অস্থিরতা চলছে। এর বাইরে ঢাকা ব্যাংকেও একটি বেসরকারি গ্রুপ মালিকানায় আসতে চাইছে পুঁজিবাজার থেকে শেয়ার কিনে।

গত ছয় মাসে এবি ব্যাংকের ব্যাংকটির উল্লেখযোগ্য শেয়ার কিনেছে চট্টগ্রামভিত্তিক একটি শিল্প গ্রুপ। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এই গ্রুপটির অর্থের উৎস খতিয়ে দেখার কথা জানালেও সরকার এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে দৃশ্যমান কোনো উদ্যোগ নেয়নি।

এবি ব্যাংকের প্রায় ২৫ শতাংশ শেয়ারের মালিকানা রয়েছে বিএনপি নেতা সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এম মোরশেদ খানের হাতে।