এনবিআরের প্রাক-বাজেট আলোচনা ৩ এপ্রিল থেকে শুরু

ঢাকা, ২৮ মার্চ, ২০১৮ : জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) প্রাক-বাজেট আলোচনা আগামী ৩ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে। মোট ২১টি খাতের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আগামী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটের শুল্ক ও কর সংক্রান্ত বিষয়ে মতবিনিময় করবে এনবিআর।
বরাবরের মত এবারও দেশের প্রধান চেম্বারগুলোর নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময়ের মধ্যে দিয়ে এই প্রাক-বাজেট আলোচনা শুরু করবে রাজস্ব প্রশাসন।
এনবিআরের প্রধান বাজেট সমন্বয়কারী মোহাম্মদ লুৎফর রহমান বলেন, আগামী ৩ এপ্রিল থেকে প্রাক-বাজেট আলোচনা শুরু হচ্ছে। তবে কোন সংগঠনের সঙ্গে কবে বসবো, সেই তালিকা এখনও পুরোপুরি প্রস্তুত করতে পারেনি। আগামী দুই-একদিনের মধ্যে তালিকা প্রস্তুত হয়ে যাবে বলে তিনি জানান।
এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূইয়া প্রাক-বাজেট আলোচনার সব বৈঠকেই সভাপতিত্ব করবেন। রাজধানীর সেগুনবাগিচায় রাজস্ব ভবনের সভাকক্ষে এসব বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।
দেশের শিল্প বিকাশে বিভিন্ন খাতের প্রতিনিধিরা এসব আলোচনায় যেসব প্রস্তাব দেবেন, সেগুলো পর্যালোচনা করে বাজেটে অন্তর্ভুক্ত করতে অর্থ মন্ত্রণালয়কে সুপারিশ করা হবে বলে জানান এনবিআরের জ্যেষ্ঠ তথ্য কর্মকর্তা সৈয়দ এ মু’মেন।
তিনি বলেন, ‘জনকল্যাণমূলক, সুষম, বিশ্লেষণধর্মী এবং জন-অংশীদারমূলক জাতীয় বাজেট প্রনয়ণের উদ্দেশ্যে এসব আলোচনা হবে।’
বরাবরের মত এবারও জুন মাসের প্রথম সপ্তাহে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত জাতীয় সংসদে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন করবেন। মাসব্যাপী আলোচনার পর ৩০ জুন বা এর আগেই তা পাস হবে। আর নতুন অর্থবছর শুরু হবে পহেলা জুলাই থেকে।
এরই মধ্যে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষের সঙ্গে প্রাক-বাজেট আলোচনা শুরু করেছেন অর্থমন্ত্রী। নতুন বাজেটের আকার চার লাখ ৭৫ হাজার কোটি টাকা হতে পারে বলে আভাস দিয়েছেন তিনি।
চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেটের আকার চার লাখ ২৬৬ কোটি টাকা।
এদিকে, আগামী অর্থবছরের বাজেট প্রণয়নের লক্ষে গত ১৮ মার্চ এনবিআর ব্যক্তি, চেম্বার, সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের কাছে বাজেট প্রস্তাবনা আহবান করে। এরই আলোকে বিভিন্ন চেম্বার ও বণিক সমিতি বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশনের (এফবিসিসিআই) কাছে প্রস্তাবনা পাঠাতে শুরু করেছে। এছাড়া ব্যাক্তি ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠান তাদের বাজেট প্রস্তাবনা ই-মেইল অথবা সরাসরি এনবিআরে পাঠাতে পারবে।