একরাত হাজতবাসের পর জরিমানা দিয়ে রক্ষা পেল চার কিশোর

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : রেজিষ্ট্রেশান বিহিন মোটর সাইকেলের নাম্বার প্লেইটে র‌্যাবের ষ্টিকার লাগিয়ে ঘুরতে গিয়ে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর থানা পুলিশের হাতে আটকের পর একরাত হাজতবাসের পর জরিমানা দিয়ে রক্ষা পেল চার কিশোর।’ বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার গতকাল মঙ্গলবার রাতে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে চার কিশোরের প্রত্যেককে ২’শ টাকা করে জরিমানার আদেশ প্রদান করেন।’
জানা গেছে, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার মাধ্যমিক স্কুলে পড়ুয়া ধনপুরের মেরুয়াখলা গ্রামের বাচ্চু মিয়া মিয়ার ছেলে সেলিম আহমদ (১৫), একই গ্রামের মন্নাছ মিয়ার ছেলে শাহীন আলম (১৫), রাজ্জাক মিয়ার ছেলে আবুল হোসেন (১৭) সহ পাশর্বর্তী পলাশ গ্রামের মৃত আবদুল আহাদের ছেলে দ্বীন ইসলামে (১৭)’র ভাড়ায় চালিত মোটর সাইকেল নিয়ে ঈদুল আযহা উপলক্ষে সোমবার তাহিরপুরের সীমান্তবর্তী টেকেরঘাটে ঘুরতে আসে।’ ওই চার কিশোরের ব্যবহৃত টিভিএস ১০০ সিসি মোটরসাইকেলের রেজিষ্টেশান না থাকায় চতুরতা করে নাম্বার প্লেইটে র‌্যাব-৯ সিলেট এর মোবাইল ফোন সংযুক্ত ষ্টিকার লাগিয়ে সীমান্ত এলাকায় একাধিকবার চক্কর দেয়ার সময় জনমনে র‌্যাব আতঙ্ক দেখা দেয়। ’পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজন বিষয়টি টেকেরঘাট পুলিশ ফাঁড়িতে অবহিত করলে গত সোমবার বিকেলে পুলিশ মোটরসাইকেল সহ ওই চার কিশোরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। অবশেষে একরাত হাজতবাসের পর তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অতিরিক্ত দায়িত্বে থাকা বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানিয়া সুলতানা গতকাল মঙ্গলবার রাতে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে চার কিশোরের প্রত্যেককে ২’শ টাকা করে জরিমানার আদেশ প্রদান করেন।’
তাহিরপুর থানার ওসি শ্রী নন্দন কান্তি ধর বুধবার ওই তথ্য নিশ্চিত করে বললেন, জরিমানার অর্থ পরিশোধের পর ওই চার কিশোরকে তাদের অভিবাবকের জিম্মায় দেয়া হলেও বৈধ কাগজপত্র দেখাতে ব্যর্থ হওয়ায় আপাতত মোটরসাইকেলটি জব্দ করা হয়েছে।