উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কাজ করতে চাই : ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ

ঢাকা, ১৬ মার্চ, ২০১৮ : স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের অভিযাত্রায় বাংলাদেশের সামনে যেসব চ্যালেঞ্জ রয়েছে তা মোকাবেলায় সরকারের সঙ্গে একযোগে কাজ করতে চাই জানিয়ে ব্যাবসায়ীরা বলেছেন, এর জন্য সম্মিলিত উদ্যোগ দরকার। এজন্য তারা বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়ানো,রফতানি পণ্য বহুমুখীকরণ, যুগোপযোগী শিল্পনীতি প্রণয়ন এবং করপোরেট কর কমানোসহ আর্থিকখাতে সংস্কার আনার আহবান জানিয়েছে।
বৃহস্পতিবার রাজধানীর মতিঝিলে ফেডারেশন ভবনে বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফোরেশন (এফবিসিসিআই) আয়োজিত ‘বাংলাদেশ: স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের অভিযাত্রা’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।
এফবিসিসিআই সভাপতি মো. শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ।
এতে অন্যান্যের মধ্যে বাণিজ্য সচিব সুভাশিষ বোস, জাতিসংঘে বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি মো. আব্দুল হান্নান, এফবিসিসিআইয়ের সিনিয়র সহসভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, ব্যবসায়ী নেতা আফতাব-উল-ইসলাম প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবুল কালাম আজাদ উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলায় সরকারের পাশাপাশি দেশের বেসরকারি খাতকেও একযোগে কাজ করার আহবান জানান। তিনি বলেন, স্বলোন্নত দেশকে উত্তোরণের ক্ষেত্রে এদেশের বেসরকারি খাতের বিশেষ অবদান রয়েছে। এবছর ‘উন্নয়নশীল দেশে’ উত্তরণের ঘোষণা এলেও বাংলাদেশকে আগামি আরও ৩ বছর পর্যবেক্ষণের মধ্যে থাকতে হবে বলে তিনি জানান।
এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম বলেন, প্রয়োজনীয় ৩টি নির্ণায়ক সফলভাবে পূর্ণ করায় প্রথম দেশ হিসেবে বাংলাদেশের জন্য ‘উন্নয়নশীল দেশ’ উত্তরণ অনেক সহজ হয়েছে। দেশের বেসরকারিখাত এই উন্নয়নের অংশিদার হতে চাই। তবে দেশের উন্নয়নের এ পর্যায়ে মেধাস্বত্ব, ট্রিপস, জিএসপি প্লাস এবং মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি সহ অন্যান্য যেসব চ্যালেঞ্জ রয়েছে তা মোকাবেলায় সরকারের প্রয়োজনীয় সহায়তা দরকার বলে জানান তিনি।
তিনি বলেন, উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের অভিযাত্রায় যেসব চ্যালেঞ্জ আসবে, তা মোকাবেলায় বেসরকারিখাত বিশেষ করে ব্যবসায়ীরা সরকারের সাথে সম্মিলিতভাবে কাজ করতে চাই।
উন্মুক্ত আলোচনা পর্বে ব্যবসায়ীরা দেশের জন্য বিনিয়োগ আকর্ষণে ‘বিনিয়োগ মন্ত্রণালয়’ ও ‘এসএমই মন্ত্রণালয়’ গঠনের আহবান জানান।
অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের স্বীকৃতি এবং তা উদযাপনের বিভিন্ন দিক নিয়ে ভিডিও উপস্থাপনা করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের উপসচিব আনোয়ার হোসেন।