উত্তর কোরিয়ায় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর স্থগিত করলেন ট্রাম্প

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক : মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর পরিকল্পিত উত্তর কোরিয়া সফর স্থগিত করে দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নিকট ভবিষ্যতে তার কোনো ধরণের সফরও হওয়ার সম্ভাবনাও বাতিল করেছেন তিনি। বিবিসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মাইক পম্পেও উত্তর কোরিয়া বিষয়ক তার নয়া বিশেষ প্রতিনিধি স্টিফেন বিগানকে নিয়ে পিয়ংইয়ং সফরে যাবেন বলে ঘোষণা করার পরদিন ট্রাম্প এ সফর আটকে দিলেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প শুক্রবার এক টুইটার বার্তায় পম্পেরও সফর স্থগিত করে দেয়ার কথা জানান। পিয়ংইয়ংয়ের পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ প্রক্রিয়ায় পর্যাপ্ত অগ্রগতি না হওয়াকে এ সফর স্থগিত করার কারণ হিসেবে উল্লেখ করেন তিনি। একইসঙ্গে কোরীয় উপদ্বীপের পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ প্রক্রিয়ায় সহযোগিতা না করার জন্য চীনকে অভিযুক্ত করেন ট্রাম্প।

ট্রাম্প বলেন, পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে চীন উত্তর কোরিয়াকে পর্যাপ্ত চাপ দিচ্ছে না। আমেরিকার সাথে চীনের বাণিজ্য মতবিরোধ এর অন্যতম কারণ।

শুক্রবার বিকালে পম্পেওকে হোয়াইট হাউজে ডেকে তার উত্তর কোরিয়া সফর বাতিল করার আহ্বান জানান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবার উত্তর কোরিয়া সফরে যেতে পারলে গত জুনের দ্বিপক্ষীয় শীর্ষ বৈঠকের পর এটি হতো তার দ্বিতীয় পিয়ংইয়ং সফর। গত ১২ জুন সিঙ্গাপুরে কিম জং-উনের সঙ্গে বৈঠককে ব্যাপক সাফল্য বলে উল্লেখ করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। ওই শীর্ষ বৈঠকে উত্তর কোরিয়া নিজের পরমাণু অস্ত্র ধ্বংসের মৌখিক প্রতিশ্রুতি দিলেও দুইদেশের মধ্যে স্বাক্ষরিত সমঝোতায় কোনো শক্ত প্রতিশ্রুতি দেয়া থেকে বিরত থাকেন কিম। বিষয়টি নিয়ে দেশে সমালোচনার মুখে পড়েন ট্রাম্প।

এদিকে আমেরিকার কয়েকজন গোয়েন্দা ও প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা পম্পেওর উত্তর কোরিয়া সফরের সমালোচনা করে বলেছিলেন, তিনি বারবার উত্তর কোরিয়া সফরে গেলেও দেশটির পরমাণু অস্ত্র ধ্বংসের ব্যাপারে উল্লেখযোগ্য কোনো অগ্রগতি হয়নি। এর আগে একাধিকবার উত্তর কোরিয়া সফরে গিয়ে কিম জং-উনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন পম্পেও।