ঈদের জামাতে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের জন্য দোয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক : পবিত্র ঈদুল আজহার জামাতে মিয়ানমারের নির্যাতিত রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য দোয়া করা হয়েছে। রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ঈদের জামাতে মোনাজাতে রোহিঙ্গাদের কথা উল্লেখ করা হয়। রোহিঙ্গাদের রক্ষা করতে আল্লাহর দরবারে বিশেষ প্রার্থনা জানানো হয়।
জাতীয় ঈদগাহে ঈদের নামাজের ইমামতি করেন জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের জ্যেষ্ঠ পেশ ইমাম মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। নামাজ শেষে হাত তোলে প্রাকৃতিক দুর্যোগসহ সবধরনের বালা-মুসিবত থেকে দেশ ও জাতির মুক্তি ও কল্যাণ কামনা করা হয়। বিশেষ করে মিয়ানমারে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের জন্য দোয়া করা হয়। সেই সাথে বিশ্বের মুসলমানকে জুলুম-অত্যাচার থেকে মুক্ত করে বিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠার দোয়া করেন ইমাম।
দেশের অন্যতম বৃহত্তম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয় কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ময়দানে। নামাজে ইমামতি করেন শহরের শামছুদ্দিন ভূঁইয়া জামে মসজিদের খতিব মুফতি হিফজুর রহমান। নামাজ শেষে মিয়ানমারে গণহত্যা থেকে রোহিঙ্গাদের রক্ষা ও তাদের হেফাজতের জন্য বিশেষ দোয়া করা হয়।
১৯৬২ সাল থেকে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও মগদের দ্বারা বিভিন্ন সময় নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছে রোহিঙ্গা মুসলিমরা। তবে গত বছরের শেষ দিকে সেনাবাহিনীর ক্যাম্পে হামলার জের ধরে রোহিঙ্গাদের বাড়ি-ঘরে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। শত শত রোহিঙ্গাকে হত্যা করা হয়। সম্প্রতি নতুনভাবে শুরু হয়েছে সহিংসতা। যা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। মিয়ানমারের সেনাবাহিনী নির্বিচারে গুলি করা হচ্ছে। বাড়ি-ঘরে আগুন ধরে দেয়া হচ্ছে। পালিয়ে আসার সময় সমুদ্রে ডুবে মারা গেছেন অর্ধশতাধিক রোহিঙ্গা। জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী গত কয়েক দিনে ৪০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা দেশটি থেকে প্রাণ ভয়ে পালিয়ে এসেছেন।