ঈদুল আযহায় রোগমুক্ত সুস্থ প্রাণি নিশ্চিতে ক্যাব ও প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ের প্রচারাভিযান

স্থানীয় ভাবে প্রচুর গরুর উৎপাদন হলেও বাজারে পর্যাপ্ত গরুর সরবরাহ আসেনি, অন্যদিকে সীমিত পরিমান ভারতীয় গরু বাজারে আসলেও উত্তারাঞ্চলের গরুর সরবরাহ বাজারে কম থাকায় ছোট ও মাজারী গরুর ক্রেতারা সংকটে পড়তে পারে। সিটি কর্পোরেশন কোটি কোটি টাকায় গরুর বাজার ইজারা দিলেও ৪৫ ডিগ্রি অ্যাঙগেলে গরু দাঁড়িয়ে রেখে গরুকে বড় দেখানোর কারনে বাজারে গরুগুলি পরিপূর্ণ বিশ্রাম পাচ্ছে না।

এছাড়াও গরুর চিকিৎসায় হাতুড়ে ডাক্তারদের অবাধ বিচরণের কারনে কৃতিমভাবে গরু মোটাতাজকরণ ও অপচিকিৎসার সম্ভাবনা বেড়েই চলছে। যদিও জেলা প্রাণি সম্পদ অফিসের ভেটেরিনারী মেডিকেল ক্যাম্প স্থাপন হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় কম এবং ক্রেতারা সে বিষয়ে সচেতন নন। অন্যদিকে গরুর বাজারে ১ সপ্তাহ আগে থেকেই জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত থাকার ঘোষনা প্রদান করা হলেও সিটি কর্পোরেশন ও জেলা প্রশাসনের কোন ভ্রাম্যমান আদালতের টিমকে বাজারে দেখা যায়নি।

এ অবস্থায় গরু ক্রয়ে ভোক্তাদেরকে আরও সতর্কতা অবলম্বন করা, প্রাণি সম্পদ কার্যালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী গরু ক্রয় এবং পরবর্তী পরিচর্যা অনুসরণ, গরুর বাজারকে সুস্থ গরুর পরিবেশ নিশ্চিত করতে সিটি কর্পোরেশন ও জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমান আদালত জোরদার করার দাবি জানিয়েছেন কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) চট্টগ্রাম নেতৃবৃন্দ।

শনিবার (১৮ আগষ্ঠ) নগরীর কাটগড়, স্টীলমিল, সাগরিকা ও নুর নগর হাউজিং গরুর বাজারে আসন্ন পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে সুস্থ, রোগমুক্ত পশু নিশ্চিত করা, কৃত্রিমভাবে গরু মোটাতাজাকরণ রোধে ভোক্তা পর্যায়ে করনীয় বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি কল্পে প্রচারণা কর্মসুচি ও গরুর বাজার পরিস্থিতি মনিটরিং শেষে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত মতামত ব্যক্ত করেন।

কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ(ক্যাব) চট্টগ্রাম ও জেলা প্রাণি সম্পদ কার্যালয় এর যৌথ প্রচারণা কার্যক্রম ও গরুর বাজার মনিটরিং কার্যক্রমে সাগরিকা বাজারে নেতৃত্ব প্রদান করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র অধ্যাপক নেছার আহমদ মঞ্জু, সংরক্ষিত নারী আসনের কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, কাটগড় ও স্টীলমিল বাজারে নেতৃত্ব প্রদান করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর জয়নাল আবেদীন ও নুর নগর হাউজিং এ নেতৃত্ব প্রদান করেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর আশরাফুল আলম।

প্রচারণা কর্মসুচি ও বাজার তদারকি কার্যক্রম উপলক্ষে অন্যান্যদের মধ্যে ক্যাব কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট এস এম নাজের হোসাইন, ক্যাব চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা সভাপতি আলহাজ্ব আবদুল মান্নান, ক্যাব মহানগরের সাধারণ সম্পাদক অজয় মিত্র শংকু, ক্যাব যুব গ্রুপের সভাপতি চৌধুরী কে এনএম রিয়াদ, ক্যাব সদরঘাট থানার সভাপতি শাহীন চৌধুরী, ক্যাব কোতোয়ালীর সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌস, ক্যাব চান্দগাঁও থানা সভাপতি জানে আলম, স্বপ্নীল ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ আলী সিকদার, ক্যাব চান্দগাঁও এর আবু ইউনুচ, অধ্যক্ষ মনিরুজ্জমান, নাঈম উদ্দীন আকিব, চান্দগাঁও ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর নুরুল হুদা লালু, ক্যাব বিভাগীয় সংগঠক জহুরুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরে ক্যাব প্রতিনিধি দল স্টিল মিল, কাটগড়, সাগরিকা ও নুর নগর হাউজিং গরুর বাজারে ক্রেতাদের মাঝে জেলা প্রাণি সম্পদ কার্যালয় ও ক্যাব কর্তৃক প্রণীত লিফলেট বিতরণ করেন এবং বাজারের দর্শনীয় স্থানে ব্যানার স্থাপন করেন। এ উপলক্ষে অনুষ্ঠানে ক্যাব নেতৃবৃন্দ বলেন কোরবানীর গরুর বাজারে যেন ক্রেতারা প্রতারিত না হয় সেজন্য প্রশাসনের উদ্যোগে ভ্রাম্যমান আদালত ও প্রাণি সম্পদ অফিসের ভ্রাম্যমান মেডিকেল টিম নিয়োজিত থাকবে।

যেখানে অতি সহজে রোগাক্রান্ত ও কৃত্রিমভাবে মোটাতাজাকরণ গরু সনাক্ত করা যাবে। ক্রেতারা প্রয়োজনে জেলা প্রাণি সম্পদ কার্যালয়ের হটলাইন নং ০৩১-৬৫৯০৭৬, ০১৮৫৯২৫৫১৫১, ০১৭২০৮৮২২৮২ এই নাম্বার অথবাwww.facebook: CABdhaka, Consumers Association of Bangladesh-CAB/ক্যাব চট্টগ্রাম এই ঠিকানায় যোগাযোগ করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (১৪ আগষ্ঠ) থেকে ক্যাব ও জেলা প্রাণি সম্পদ কার্যালয় চট্টগ্রাম, জেলা প্রশাসন চট্টগ্রামের যৌথ উদ্যোগে কোরবানীর হাটে ক্রেতা হয়রানি রোধ, রোগমুক্ত গবাদি পশু নিশ্চিতকরণ, কৃত্রিমভাবে গরু মোটাতাজাকরণ সনাক্ত করণে নগরীর ৮টি গরুর বাজার ও নগরীর বাইরে ২টি বাজারে প্রচারপত্র বিলি, ব্যানার স্থাপন, ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা, গরুর বাজারে সার্বক্ষনিক ভাবে ভোটেরিনারী সার্জন উপস্থিতি ও জরুরী প্রয়োজনে হটলাইন সেবা প্রদানের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।(খবর বিজ্ঞপ্তি)