ইসিকে সাকীর আইনি নোটিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক : বামধারার রাজনৈতিক দল গণসংহতি আন্দোলনকে রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধিত করার আবেদন খারিজ হওয়া কেন অবৈধ হবে না— জানতে চেয়ে আবেদন খারিজ করার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার বা পুর্নবিবেচনা করতে নির্বাচন কমিশনকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন দলটির প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি।

গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকীর পক্ষে তার আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোর্তিময় বড়ুয়া রবিবার নির্বাচন কমিশনের (ইসি) বিরুদ্ধে রেজিস্ট্রি ডাকযোগ এ নোটিশ পাঠান।

নোটিশে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, আইন সচিব ও নির্বাচন কমিশনের উপ-সচিবকে বিবাদী করা হয়েছে। সাত দিনের মধ্যে দিতে নোটিশের জবাব দিতে বলা হয়েছে, অন্যথায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।

নোটিশে বলা হয়, দল হিসেবে নিবন্ধন দেওয়ার জন্য ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর নির্বাচন কমিশন বরাবরে আবেদন করে গণসংহতি আন্দোলন। ৮ এপ্রিল নির্বাচন কমিশন থেকে বলা হয়, আবেদনে গণপ্রতিনিধিত্ব অধ্যাদেশের দুইটি প্রবিধান পরিষ্কার করা হয়নি। ১৫ দিনের মধ্যে এর ব্যাখ্যা চাওয়া হয়। পরবর্তীতে এ দুইটি প্রবিধানে বিষয়টি ঠিক করে প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত ২২ এপ্রিল নির্বাচন কমিশনে দাখিল করে গণসংহতি। কিন্তু ১৯ জুন আইন অনুসারে আবেদন সঠিক হয়নি উল্লেখ করে তা খারিজ করে দেওয়া হয়। এ খারিজাদেশ সাত দিনের মধ্যে প্রত্যাহার বা পুর্নবিবেচনা চেয়ে নোটিশটি দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধনের জন্য নির্বাচন কমিশনের কাছে আবেদন করে গণসংহতি আন্দোলন। তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে আরও দুটি প্রবিধান সংযোজন করতে বলা হয়।

নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে দুটি প্রবিধান যোগ করার পরও বলা হয় বিষয়টি সংবিধানসম্মত হয়নি। তাই আবেদন খারিজ করা হয়েছে। এরপর ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়।

Inline
Inline