ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি : কুবির সেই শিক্ষার্থী সাময়িক বহিস্কার

মীর শাহাদাত, কুবি প্রতিবেদক, ইসলাম ধর্ম এবং মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ)’কে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বাজে মন্তব্য করায় জয়দেব চন্দ্র শীল নামের এক শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (কুবি) কর্তৃপক্ষ।

গতকাল শনিবার (১৮ মে) রাতে ‘Voice of America’ নামে একটি ফেসবুক পেইজে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর একটি ভিডিওতে একটি কমেন্ট লেখেন জয়দেব। সেখানে তিনি লেখেন, ‘All Muslims in the world believe only on terrorism ideology that had been exercised by Hazrat Muhammed (s).’

এ কমেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নজরে আসলে তা নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্রুপগুলোতে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় ওঠে। এদিকে জয় দেবকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবি জানায় শিক্ষার্থীদের একটি অংশ। জয়দেব চন্দ্র শীল কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের প্রথম ব্যাচের (২০১৪-১৫ সেশন) শিক্ষার্থী।

এরই প্রেক্ষিতে রবিবার (১৯ মে) ভোর রাতে জয়দেবকে তার মেস থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে কয়েকজন শিক্ষার্থী তাকে মারধর করে কুমিল্লা কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত জয় দেব চন্দ্র শীল বলেন, ‘আমি ওই গ্রুপটিতে যারা কমেন্ট করেছে তাদের উদ্দেশ্য এটি কমেন্ট করেছিলাম। পরে আমার ভুল বুঝতে পেরে আমি সেটা মুছে দেই। আমি এর জন্য সবার কাছে ক্ষমা প্রার্থণা করছি।’

এ বিষয়ে কুমিল্লা কোতোয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মো. ইমাম হোসেন বলেন, ‘জয় দেবকে কুমিল্লার ঠাকুরপাড়ার একটি মেস থেকে আমরা আটক করি। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে তার নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

এদিকে অভিযুক্ত জয় দেবের বিচারের দাবিতে রবিবার (১৯ মে) দুপুরে ক্যাম্পাসের কাঁঠাল তলায় মানববন্ধন করে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যরা। এতে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা, শাখা ছত্রলীগের নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ, কেন্দ্রীয় মসজিদের পেশ ইমাম, কর্মচারীবৃন্দ প্রমুখ অংশগ্রহণ করেন।

এ সময় তারা অভিযুক্তকে দ্রুত দেশের প্রচলিত আইনে এনে বিচার ও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিস্কার করার দাবি জানান। মানববন্ধন শেষে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বরাবর এক স্মারকলিপি প্রদান করে শিক্ষার্থীরা।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী বলেন, ‘যে কোন ধর্মকে অবমাননা করাই চরম অপরাধ। এ বিষয়ে আমি প্রক্টরিয়াল বডিকে বিস্তারিত জানাতে বলেছি। আমরা তৎক্ষনাৎ তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিব এবং তদন্ত কমিটি গঠন করে তার বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান আইনে ব্যবস্থা নেব।’

উল্লেখ্য, অভিযুক্ত জয় দেবের বিরুদ্ধে এর আগেও বিভিন্ন সময়ে ইসলাম বিদ্বেষী ভিডিও শেয়ার ও তার ফেসবুক বন্ধুদের মেসেঞ্জারে পাঠানোরও অভিযোগ রয়েছে।