ইসরাইলের সঙ্গে সবধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করছে পিএলও

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন পিএলও ইসরাইলের সঙ্গে সবধরনের সম্পর্ক ছিন্ন করার প্রক্রিয়া শুরুর কথা জানিয়েছে। একইসঙ্গে সঙ্গে ইসরাইলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) দ্বারস্থ হবে পিএলও।

গত শনিবার সন্ধ্যায় পিএলওর নির্বাহী কমিটির দীর্ঘ বৈঠক শেষে পিএলও জানায়, ‘অধিকৃত ইসরায়েলি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে রাজনৈতিক, নিরাপত্তা, অর্থনীতি এবং প্রশাসনিক সকল ক্ষেত্রে সম্পর্ক ছিন্ন করার পরিকল্পনা গ্রহণ করতে তারা ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষকে বলছে।

এর আগে ১৫ জানুয়ারি পশ্চিম তীরের রামাল্লায় পিএলও সেন্ট্রাল কাউন্সিলের বৈঠকে অসলো চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়া এবং ইসরায়েলকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার বিষয়টি প্রত্যাহার করার হুমকি দেওয়া হয়।

ফিলিস্তিনের স্থানীয় সংবাদ সংস্থা ওয়াফার খবর বলা হয়েছে. পিএলওর নির্বাহী কমিটি আরেকটি উচ্চতর কমিটি গঠন করতে চাইছে। যার উদ্দেশ্য হবে ইসরায়েলকে পিএলও’র দেওয়া স্বীকৃতি বাতিল করা। ফিলিস্তিনের সবচেয়ে বৃহৎ স্বাধীনতাকামী সংগঠন পিএলও’র কৌশলে পরিবর্তন আনার জন্য সম্প্রতি চাপ সৃষ্টি হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত ৬ ডিসেম্বর পবিত্র ভূমি জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন। সেই থেকে ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভ অব্যাহত আছে। ইসরাইলও ওই অঞ্চলের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাসের ওপর আক্রমণ অব্যাহত রেখেছে। এই প্রেক্ষাপটেই পিএলও’র নির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়।

পিএলওর তরফ থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ইসরাইলের সঙ্গে শান্তিপূর্ণ মীমাংসার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করতে ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস ২০ ফেব্রুয়ারি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে ভাষণ দেবেন।