ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারের ট্রিকস

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : জনপ্রিয় ফটো শেয়ারিং প্লাটফর্ম ইনস্টাগ্রাম। এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা সোয়া ৩০০ মিলিয়ন। ইনস্টাগ্রামে স্টোরি বেশ পপুলার। প্রত্যেক দুই বা তিন সপ্তাহ অন্তর অন্তর স্টোরিজের মোড পাল্টাবে। এবার দেখে নেওয়া যাক ইনস্টা স্টোরিজে ঠিক কী কী নতুন ফিচার্স এসেছে।

পোস্ট স্টোরিজে শেয়ার করুন
স্টোরিজের মধ্যে দিয়ে অনেকে নিজের পোস্টে ট্রাফিক বাড়ায়। অনেকেই স্টোরিজে বলে থাকেন “New post up, check it out”. স্টোরিজ থেকেও ডিরেক্ট পোস্ট করা যায়।

১. ইনস্টাগ্রামে যান। পছন্দের পোস্টে যান। সেন্ড টু আইকনে যান।

২. পপ আপে অ্যাড পোস্ট টু ইওর স্টোরি

৩. স্টোরি স্ক্রিনে এলে, ট্যাপ করুন ইওর স্টোরি। আপলোড করুন

অন্য প্রোফাইল যেগুলো প্রাইভেট করা নেই, তাদের পোস্ট থেকেও এভাবে স্টোরি করতে পারেন।

পোস্ট ড্রেস আপ করা
স্টোরিজে স্টিকার বা টেক্সট তো করেই থাকেন। পোস্টের ক্ষেত্রেও একই জিনিস করা যেতে পারে। পোস্ট যদিও ডুডল প্রুফ, কিন্তু এর ব্যাকগ্রাউন্ডে এই কাজ করা যায়। সোয়াইপ করে, বা আঙুলে করে ছোট বড় তো করাই যায়।

নিজের পোস্টকে অন্যের স্টোরি হওয়া থেকে আটকান
অনেকেই চান তার স্টোরি তার পার্সোনাল থাকুন। সেই সুযোগ ইনস্টাগ্রাম দিয়েছে। প্রোফাইলে দিয়ে ওপেন সেটিংসে যান। প্রাইভেসি অ্যান্ড সিকিওরিটিতে স্ক্রল ডাউন করুন। অ্যালাউ আদার্স টু রিশেয়ার অপশন আছে। অফ করে দিন

অন্যান্য ফিচারস
স্টোরিজের মধ্যে দিয়ে বার্তা আদানপ্রদান চলতে পারে। শেয়ারড পোস্টে ট্যাপ করলে আপনা আপনিই তা আসল পোস্টে নিয়ে যাবে। নতুন পোস্ট আপলোড করলে ইনস্টাগ্রাম সেটি আপনার স্টোরিতেও নিয়ে যাওয়ার পারমিশন দেবে।

এছাড়াও রয়েছে মেসেজ কাস্টমাইজ করা। সেন্ড আইকনে ট্যাপ করুন, পোস্ট স্টোরিতে অ্যাড করুন। স্টিকার ইমোজি এসব দিয়ে সাজাতে পারেন।