আ.লীগ না চাইলেও জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ঐক্য: ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক : আওয়ামী লীগ না চাইলেও জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপি জাতীয় ঐক্য গড়ে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধান করবে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
শনিবার বিকালে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে এক অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।
গত ২৪ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে পুলিশ ও সেনাক্যাম্পে হামলার পর রোহিঙ্গাদের নিধনে অভিযান শুরু করে দেশটির সেনাবাহিনী। অভিযানের নামে রোহিঙ্গাদের গণহত্যা ও বাড়িঘর আগুন নিয়ে জ্বালিয়ে দেয় সেনাবাহিনী ও রাখাইন সন্ত্রাসীরা।
নির্যাতনের মুখে চার লাখের মতো রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে বলে জাতিসংঘের তথ্যে বলা হয়। কিন্তু স্থানীয়দের মতে এই সংখ্যা চার লাখেরও বেশি।
রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলায় জাতীয় ঐক্যে গড়তে মহাসচিবসহ বিএনপির বেশ কয়েকজন নেতা সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। তাদের আহ্বানের প্রেক্ষিতে আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ নাসিম বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতীয় ঐক্য হয়ে গেছে, আর নতুন করে কোনো ঐক্যের প্রয়োজন নেই।
গত শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রে এক অনুষ্ঠানে বিএনপিকে সন্ত্রাসী দল আখ্যা দিয়ে তাদের সঙ্গে রাজনৈতিক সমঝোতার কথা নাকচ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ভবিষ্যতে কেউ যেন এ ধরনের প্রস্তাব নিয়ে না আসে।
শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারা সন্ত্রাস ও হত্যার রাজনীতির সঙ্গে জড়িত আমি তাদের কাছে ফিরে যেতে আগ্রহী নই। তাই বিএনপির সঙ্গে রাজনৈতিক সমঝোতার প্রস্তাব দেয়া কারো উচিত হবে না।’ প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের জবাবে মির্জা ফখরুল এ কথা বলেন।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, আওয়ামী লীগ যদি জাতীয় ঐক্য গড়তে না চায়, তাহলে দেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে বিএনপি জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধান করবে।
সরকারের উদ্দেশ্যে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমিত্ব বা সংকীর্ণতা পরিহার করে জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলে রোহিঙ্গা সংকট মোকাবেলা করুন।