আরও তিন দিনের কর্মসূচি ঘোষণা বিএনপির

দুর্নীতির মামলায় পাঁচ বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে পাঁচ দিন কর্মসূচি পালন শেষে আরও তিন দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। এর মধ্যে আছে গণস্বাক্ষর, স্মারকলিপি, বিক্ষোভ সমাবেশ।

বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনের দলীয় কার্যালয়ে নতুন এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

কর্মসূচির মধ্যে আছে ১৭ ফেব্রুয়ারি শনিবার ঢাকাসহ সারাদেশে গণস্বাক্ষর অভিযান। রবিবার সব জেলা প্রশাসকদের কাছে স্মারকলিপি প্রদান এবং মঙ্গলবার ঢাকা ছাড়া সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশ।

ফখরুল বলেন, আমরা ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে একটি সমাবেশ করতে চাই। এজন্য কয়েকদিনের মধ্যে অনুমতি চাওয়া হবে। আশা করি প্রশাসন আমাদের সমাবেশ করার অনুমতি দেবে।’

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় বিএনপি। এর প্রতিবাদে এখন অবধি পাঁচ দিনের কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি। প্রতিটি কর্মসূচিই ছিল ‘শান্তিপূর্ণ’।

রায়ের দিন মির্জা ফখরুল জানান, খালেদা জিয়া তাদেরকে হঠকারী কোনো কর্মসূচি দিতে নিষেধ করেছেন। এ কারণেই ‘শান্তিপূর্ণ’ কর্মসূচি পালন করবেন তারা।

রায়ের পরদিন শুক্রবার সারাদেশে বিক্ষোভ এবং শনিবার প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করে বিএনপি।

এরপর সোম থেকে বুধবার টানা তিন দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। প্রথম দিন মানববন্ধন, দ্বিতীয় দিন অবস্থান এবং তৃতীয় দিন অনশন কর্মসূচি পালন করে বিএনপি।

এসব কর্মসূচি হাতে গোনা এক দুটি জায়গা ছাড়া নির্বিঘ্নেই পালন করেছে দলটি। তবে আজকের সংবাদ সম্মেলনে দলের মহাসচিব দাবি করেন পুলিশি বাধার। মফস্বলে দলের নেতা-কর্মীদের পুলিশ দাঁড়াতেই দিচ্ছে না বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

আর খালেদা জিয়ার কারাবাসকে মধ্যযুগীয় বা ব্রিটিশ শাসনামলে স্বাধীনতাকামী স্বদেশী আন্দোলনকারীদের যেভাবে নির্যাতন করা হতো, তার সঙ্গে তুলনা করেন বিএনপি মহাসচিব।