আরও এক রাত জেলে থাকবেন সালমান

বিনোদন ডেস্ক : কৃষ্ণসার হরিণ চোরাশিকারের মামলায় দোষী সাব্যস্ত সালমান খানকে আরও এক রাত জেলে কাটাতে হবে। শুক্রবার তার জামিনের আবেদনের শুনানির রায়দান স্থগিত রেখেছে যোধপুর দায়রা আদালত। শুক্রবার রায় স্থগিত হওয়ায় শনিবার এই আবেদনের শুনানি হবে বলে জানিয়েছেন সালমানের আইনজীবী।

এদিন সকালেই যোধপুরের দায়রা আদালতে পৌছে যান সালমানের আইনজীবী। তার দাবি, মামলা সংক্রান্ত যাবতীয় নথিপত্র তলব করেন বিচারপতি। এই কারণে তিনি মোট ৫১ পাতার জামিনের আবেদন আদালতে জমা দেন। সব কাগজপত্র খুঁটিয়ে দেখতে সময় লাগবে বলে আদালত শনিবার পর্যন্ত শুনানির রায়দান স্থগিত রেখেছে।

এদিকে জেল সূত্রে খবর, নিজের সেলে একাই রাখা হয়েছে সালমান খানকে। তার সঙ্গে কাউকেই দেখা করতে দেয়া হচ্ছে না। কারারক্ষীদের পাশাপাশি জেলে মজুত রয়েছেন নায়কের নিজস্ব দেহরক্ষী। গতরাতে জেলের দেয়া ডাল-ভাত মুখে তোলেননি সালমান। শুক্রবার সকালে নাস্তার জন্য দেয়া খিচুড়িও ফিরিয়ে দেন।
কৃষ্ণসার হরিণ চোরাশিকারের দায়ে বৃহস্পতিবার সালমানকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও ১০ হাজার রূপি জরিমানা করে যোধপুর দায়রা আদালত। ওইদিন বিকালে সুপারস্টারকে নিয়ে যাওয়া হয় যোধপুর সেন্ট্রাল জেলে। বৃহস্পতিবারের রাত তিনি সেখানেই ছিলেন।

জেলখানায় ১০৬ নম্বর কয়েদি সালমান। সাধারণ বন্দিদের মতোই সেখানে রাখা হয়েছে বলিউডের ভাইজানকে। দেয়া হচ্ছে না বিশেষ কোনো সুবিধা। এমনটাই জানিয়েছেন সেখানকার ডিআইজি বিক্রম সিং। তিনি বলেন, ‘দুই নম্বর ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে সালমানকে। তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা হয়েছে, তবে কোনো সমস্যা ধরা পড়েনি। জামিন না হওয়া পর্যন্ত জেলেই থাকতে হবে তাকে।’