আভ্যন্তরিণ খাত থেকে রাবি’র কর্মচারীদের বেতন

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণীর প্রায় আড়াইহাজার কর্মচারীকে জানুয়ারি থেকেই অষ্টম বেতন কাঠমো অনুযায়ী বেতন দেওয়ায় সিদ্ধান্ত নেওয়া  হয়েছে । এতে করে বিশ্ববিদ্যালয়ের আভ্যন্তরিণ খাত থেকে প্রতিমাসে অন্তত ২ কোটি টাকা ব্যয় করতে হবে।

মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন্যান্স কমিটি ও পরে সিন্ডিকেটের বিশেষ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের কনফারেন্স কক্ষে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সায়েনউদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে ফাইন্যান্স কমিটির বৈঠক হয়। এরপর দুপুর ১২টার দিকে ওই স্থানেই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিনের সভাপতিত্বে বিশেষ সিন্ডিকেট সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এসব তথ্য নিশ্চিত করে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সায়েনউদ্দিন আহমেদ বিডিলাইভ টোয়েন্টিফোর ডটকম কে বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারীদের অষ্টম বেতন কাঠামো বাস্তবায়ন করার জন্যই এবারের ফাইন্যান্স কমিটির সভাটি ডাকা হয়েছিল। সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের আভ্যন্তরিণ খাত থেকে কর্মচারীদের বেতন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ সিন্ডিকেট সভায় তা কার্যকর করা হয়। এবং এই বেতন ৩১ জানুয়ারির মধ্যেই দেওয়া হবে।’

উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী সারওয়ারজাহান বিডিলাইভ টোয়েন্টিফোর ডটকম কে বলেন, ‘গত মাসে অষ্টম বেতন কাঠামো চুড়ান্ত করে গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের মঞ্জুরী কমিশনকে (ইউজিসি) বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বেতন বাবদ বাড়তি কত টাকা লাগবে তা এখনও জানানো হয়নি। সেটা করতে হয়তো আরও কিছুদিন সময় লাগবে। তাই কর্মচারীদের কথা চিন্তা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের আভ্যন্তরিণখাত থেকে নতুন কাঠামোতে বেতন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী ফেব্রুয়ারি বা মার্চ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তাদেরকেও নতুন কাঠামোতে বেতন দেওয়া হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পরবর্তীতে ইউজিসি থেকে বেতনের বাজেট পেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের আভ্যন্তরিণ খাতের টাকা সেখান থেকে ফেরত নেওয়া হবে।