‘আবরার ফুটওভার ব্রিজ’ নির্মাণ কাজ শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর প্রগতি সরণির যমুনা ফিউচার পার্কের সামনের সড়কে বাসচাপায় নিহত বিইউপির শিক্ষার্থী আবরার আহাম্মেদ চৌধুরীর (২০) স্মরণে ‘আবরার ফুটওভার ব্রিজ’ নির্মাণ কাজ শুরু করেছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন।

ফুটওভার ব্রিজটির ভিত্তিপ্রস্তর গতকাল বুধবার স্থাপনের পর আজ বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) এ কাজ শুরু হয়।

সরেজমিনে দেখা যায়, সুপ্রভাত পরিবহনের বাসের চাপায় আবরার যেখানে নিহত হন সেখান থেকে মাত্র কয়েক গজ দূরেই নির্মাণ করা হচ্ছে পথচারীবান্ধব এ ফুটওভার ব্রিজ। দ্রুত চলছে নির্মাণ কাজ। এ জন্য বন্ধ রাখা হয়েছে জোয়ার সাহারা বাজারের দিকে যাওয়ার সড়কটি। সেখানে ওভারব্রিজের পাইলিংয়ের কাজ চলছে।

এর আগে গতকাল বুধবার বেলা ১১টার দিকে ফুটওভার ব্রিজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম। এ সময় ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের সময় মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে প্রধানমন্ত্রী গুরুত্বপূর্ণ নির্দেশ দিয়েছেন। দুই সিটি কর্পোরেশনের একটি সম্মিলিত মিটিং আছে। নির্দিষ্ট স্থান ছাড়া বাস অন্যত্র থামানো হলে ব্যবস্থা নেব। আমি মালিকদের সঙ্গে কথা বলেছি। আমরা সবার কাছে পরামর্শ চাচ্ছি। প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে দু’জন প্রতিনিধি নিয়ে একটি ছাত্র কাউন্সিল করে তাদের সঙ্গে বৈঠকে বসা হবে। আমরা নতুন প্রজন্মকে নিয়ে এ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করব।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা চাই রাস্তায় আর যাতে কোনো শিক্ষার্থীকে অনাকাঙ্ক্ষিত জীবন দিতে না হয়। অতি জরুরি ভিত্তিতে যেসব স্থানে ফুটওভার ব্রিজ দরকার সেটা চিহ্নিত করতে ডিএমপিকে অনুরোধ করছি।’

গত মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সকাল ৭টার দিকে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন প্রগতি সরণি এলাকায় সুপ্রভাত (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৪১৩৫) পরিবহনের একটি বাসের চাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহাম্মেদ চৌধুরী নিহত হন। পরে সড়ক অবরোধ করে আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা ৮ দফা দাবি ঘোষণা করেন। দাবিগুলোর একটি হলো এ ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ।