আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে প্রেমিকা রেখে পালালো প্রেমিক

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল, গাইবান্ধা সংবাদদাতা : গাইবান্ধায় আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে প্রেমিকা রেখে পালালো প্রেমিক। ঘটনার পর বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশনে বসেছে প্রেমিকা। সাদুল্যাপুর উপজেলার খোর্দ্দ কোমরপুর ইউনিয়নের তালুক হরিদাস গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কোমরপুর ইউনিয়নের খোর্দ্দ কোমরপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী শম্পা আক্তারের সঙ্গে গাইবান্ধা সরকারি কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র শাহ মো. শাওনের (২১) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।
একপর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে শাওন। ঘটনার দিন শাওনকে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে স্থানীয়রা। তবে কৌশলে প্রেমিকা রেখে সেখান থেকে পালিয়ে যায় শাওন। পরে ওই ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে চাপ দিলে সে বিয়ে করতে অসম্মতি জানায়।
মঙ্গলবার দুপুর থেকে প্রেমিক শাওনের বাড়িতে গিয়ে বিয়ের দাবিতে অনশন শুরু করে প্রেমিকা। তবে এখনো দেখা মেলেনি প্রেমিক শাওনের।
প্রেমিকা শম্পা আক্তারের দাবি, শাওনের সঙ্গে আমার দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক। গ্রামবাসীর হাতে ধরা পড়ায় সে আমাকে রেখে পালিয়ে যায়। শাওন আমাকে বিয়ে না করলে আত্মহত্যা ছাড়া কোনো পথ নেই আমার।
এ ব্যাপারে শাওনের বাবা আল-আমিন বলেন, ছেলে বাড়িতে না থাকায় কিছু করতে পারছি না। ছেলে বাড়ি আসলে একটা ব্যবস্থা করবো।
এ নিয়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আরিফুর রহমান চৌধুরী জানান, উভয় পক্ষের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে।
বিষয়টি জানতে চাইলে সাদুল্যাপুর থানা পুলিশের ওসি বোরহান উদ্দিন জানান, এ নিয়ে থানায় এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Inline
Inline