আত্মসমর্পণে সময় চান ‘জঙ্গি’ আবদুল্লাহ

নিজস্ব প্রতিবেদক : মিরপুরের দারুস সালামে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ঘেরাও করে রাখা বাড়িতে জেএমবি সদস্য আবদুল্লাহ সপরিবারে থাকেন বলে নিশ্চিত হয়েছে র‌্যাব। সংস্থাটি তার সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। আবদুল্লাহ র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পণের ব্যাপারে সময় চেয়েছেন। এ পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাবের অভিযানে ধীরগতি আনা হয়েছে।
র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এই কথা জানান।
র‌্যাব ডিজি বলেন, গতকাল রাত ১১টায় এখানে র‌্যাব অবস্থান নেয়। ভোর চারটা থেকে তার সঙ্গে যোগাযাগ শুরু করি। ১০-১৫ মিনিটের মধ্যে অপারেশন শেষ করার সক্ষমতা র‌্যাবের রয়েছে। কিন্তু অভিযানে দুই নিষ্পাপ শিশুর জীবন বিপন্ন হতে পারে, তাই আমরা সর্বোচ্চ সহিষ্ণুতার পরিচয় দিচ্ছি।
বেনজীর আহমেদ জানান, বাড়িটিতে মোট ২৪টি ফ্ল্যাট রয়েছে। তবে এরই মধ্যে নারী ও শিশুসহ সব বাসিন্দাকে নিরাপদে সরিয়ে নেয়া হয়েছে।
ভেতরে কী পরিমাণ বিস্ফোরক রয়েছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমাদের তথ্য মতে ভেতরে ৫০টিরও বেশি দেশীয় তৈরি ইমপ্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি বোমা) রয়েছে। এছাড়াও অ্যাসিডসহ বিস্ফোরক তৈরির বিভিন্ন দ্রব্যাদি তার কাছে মজুদ আছে। ছোট একটা পিস্তল আছে বলেও আমরা ধারণা করছি।
জঙ্গি আবদুল্লাহর পরিচয় জানতে চাইলে র‌্যাব ডিজি জানান, আমরা জানতে পেরেছি আবদুল্লাহ ১৫ বছর ধরে এই ভবনের পাঁচ তলায় ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে থাকছেন। তিনি কবুতর পালন এবং আইপিএসের ব্যবসার আড়ালে দুর্ধর্ষ জঙ্গি হয়ে উঠেছেন।
এর আগে সোমবার গভীর রাতে মিরপুরের মাজার রোডের ওই বাড়িটি ঘিরে ফেলে র‌্যাব। বাড়ির ভেতর থেকে কয়েক দফা বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া গেছে। এছাড়া র‌্যাবকে উদ্দেশ্য করে কয়েক দফা হাতবোমা ছুড়েছে সন্দেহভাজন জঙ্গিরা।
টাঙ্গাইলের জঙ্গি আস্তানা থেকে আটক দুজনের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে এই অভিযান চালানো হয়।
র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান মঙ্গলবার ভোরে সংবাদ সম্মেলনে জানান, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় টাঙ্গাইলের জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালানো হয়। সেখানে আটক দুই ভাইয়ের কাছে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে এখানে অভিযান চালানো হয়। বাড়িটি ছয়তলা। এর পঞ্চম তলায় সন্দেহভাজন জঙ্গিদের অবস্থান। সেখানে থেকে তারা বেশ কয়েকটি আইইডি বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে।
র‌্যাবের মুখপাত্র জানান, এলাকাবাসীর সর্বোচ্চ নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেই তারা অভিযানের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। অভিযান শুরু হলে সাংবাদিকদের জানানো হবে বলেও আশ্বস্ত করেন তিনি।