আজ ঢাকা বার নির্বাচনে পুনরায় ভোট গণনা

আদালত প্রতিবেদক : ঢাকা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের ভোট পুনরায় গণনা শুরু হবে আজ। শনিবার সকাল আটটায় ভোট গণনা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সকাল সাড়ে নয়টায় এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ভোট গ্রহণ শুরু হয়নি।

বহিরাগতদের প্রবেশ নিয়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিপন্থী আইনজীবী ও তাদের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের পর বৃহস্পতিবার ভোট গণনা স্থগিত করা হয়েছিল।

নির্বাচনে ভারপ্রাপ্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্বে থাকা এস এম মাহাবুবুর রহমান গতকাল শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছিলেন।

মাহাবুবুর রহমান বলেন, ‘ভোট গণনা পুনরায় শুরুর বিষয়ে নির্বাচনের প্রার্থী, সমিতির বর্তমান ও সাবেক সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকদের সঙ্গে কমিশনের বৈঠক হয়েছে। শনিবার সকাল আটটায় পুনরায় ভোট গণনা শুরুর সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যা উভয় প্যানেলের আইনজীবীরা মেনে নিয়েছেন।’

এদিকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার সমিতির সাবেক সভাপতি খোন্দকার আব্দুল মান্নান অসুস্থ হয়ে ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তবে তার অবস্থা আগের থেকে ভালো বলে জানা গেছে।

জানা যায়, ভোটগ্রহণের পর বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে গণনা শুরু হয়। এ সময় নির্বাচন কমিশন পরিচয়পত্র ছাড়া কারো প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। নিষেধাজ্ঞার মধ্যে একজন বহিরাগত ভেতরে প্রবেশ করায় কথা-কাটাকাটির একপর্যায়ে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিপন্থী আইনজীবী ও সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি ও সমিতির নিচতলায় তিনটি ককটেল বিস্ফোরণ হয়। ওই ঘটনার পর প্রধান নির্বাচন কমিশনার খোন্দকার আব্দুল মান্নান অসুস্থ হয়ে পড়লে ভোট গণনা স্থগিত করা হয়।

ঢাকা বারের ২০১৮-২০১৯ কার্যবর্ষের দুই দিনব্যাপী এই নির্বাচনে ২৭ ও ২৮ ফেব্রুয়ারি ভোট নেয়া হয়। এতে মোট ১৬ হাজার ১২৯ জন ভোটারের মধ্যে ৯ হাজার ১১ জন আইনজীবী ভোট দেন।

নির্বাচনে মোট ২৭টি পদের মধ্যে ৫৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এর মধ্যে আওয়ামী লীগ সমর্থিত সাদা প্যানেলের ২৭ জন এবং বিএনপি ও জামায়াত সমর্থিত নীল প্যানেলের ২৭ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছেন একজন।

নির্বাচনে নীল প্যানেলে সভাপতি পদে গোলাম মোস্তফা খান ও সাধারণ সম্পাদক পদে মো. হোসেন আলী খান হাসান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। অন্যদিকে সাদা প্যানেলে সভাপতি পদে আব্দুর রহমান হাওলাদার ও সাধারণ সম্পাদক পদে মো. মিজানুর রহমান মামুন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

Inline
Inline