আকিফাকে চাপা দেয়া সেই বাস ফরিদপুরে জব্দ

কুষ্টিয়া সংবাদদাতা : কুষ্টিয়ার চৌড়হাস মোড়ে শিশু আকিফা ও তার মা রিনা খাতুনকে ধাক্কা দেয়া গঞ্জেরাজ পরিবহনের বাসটি ফরিদপুর থেকে জব্দ করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (৩১ আগস্ট) রাত সাড়ে ১০টায় ফরিদপুরের নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে বাসটি জব্দ করা হয়। তবে মামলার তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

শনিবার (০১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কুষ্টিয়া পুলিশ লাইনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বাস জব্দের বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান পুলিশ সুপার এসএম মেহেদী হাসান।

পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের জানান, ফয়সাল গঞ্জেরাজ পরিবহনের বাসটি ফরিদপুরে নতুন বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পড়েছিল, সেখান থেকে কুষ্টিয়া পুলিশ জব্দ করে ভোরের দিকে কুষ্টিয়া নিয়ে আসা হয়। তবে মামলার কোনো আসামিকে সে সময় ওই এলাকায় পাওয়া যায়নি। মামলার আসামিদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। যেকোনো সময় তাদের গ্রেপ্তার করা হবে।

ইতিমধ্যে বাসটির গঞ্জের নাম মুছে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে। সেই সাথে বাসের নম্বর প্লেটে তুলে ফেলা হয়েছে।

এ সময় সেখানে অতিরিক্তি পুলিশ সুপার জহিরুল ইসলাম, সহকারী পুলিশ সুপার নুরানী ফেরদৌসী দিশাসহ পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

গত মঙ্গলবার দুপুরে শহরের চৌড়হাস মোড়ে দাঁড়িয়ে থাকা গঞ্জেরাজ নামের বাসের সামনে দিয়ে এক বছরের শিশুকন্যা আকিফাকে কোলে নিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলেন মা রিনা বেগম। হঠাৎ চালক বাসটি চালিয়ে রিনা বেগমকে পেছন থেকে ধাক্কা দেন। এতে মায়ের কোল থেকে রাস্তার ওপর ছিটকে পড়ে গুরুতর আহত হয় শিশু আকিফা।
পরে স্থানীয়দের সহায়তায় মা ও মেয়েকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে শিশুটির অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ওই দিন সন্ধ্যায় ঢাকা মেডিকেলে রেফার্ড করেন চিকিৎসকরা।

বুধবার বেলা ১১টায় শিশু আকিফার অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল। তবে শেষ পর্যন্ত তাকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

বৃহস্পতিবার ভোরে চিকিৎসাধীন মারা যায় আকিফা।